অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, আপন ভাইয়ের মেয়ের কি হবে ভেবে কাণ্ড ঘটাল মা

সিরাজগঞ্জের উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের বিন্নাবাড়ি গ্রামে নিজ স্ত্রীকে রেখে প্রতিবেশী গৃহবধূকে নিয়ে পালিয়ে গেছে এক যুবক। এই অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন ওই যুবকের মা।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে ওই মায়ের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ২৫০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আত্মহত্যা করা নারীর নাম ফিরোজা খাতুন (৪৫)। অভিযুক্ত ছেলের নাম ফিরোজ আহমেদ (২৫)। প্রতিবেশীরা জানান, ছেলের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে মা ফিরোজা খাতুনকে বিভিন্ন সময় লোকজন নানা কটূক্তি করে আসছিল।

অপমান আর হতাশার এক পর্যায়ে তিনি বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কীটনাশক পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে উদ্ধার করে নাটোর হাসপাতালের নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

স্থানীয় কয়েকজন ও ওই ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য আব্দুল করিম জানান, বিন্নাবাড়ি গ্রামের মোমিনুর রহমানের স্ত্রী ফিরোজা খাতুন বছর খানেক আগে একই গ্রামে তার আপন ভাইয়ের মেয়ের সঙ্গে ছেলে ফিরোজ আহমেদকে বিয়ে দেন।

কিন্তু তার ছেলে প্রেমের টানে এক সপ্তাহ আগে এক প্রতিবেশীর স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যান। এ বিষয়ে তাড়াশ থানার ওসি মো. ফজলে আশিক জানান,

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকালে গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *