আপুর ফোন তুলতেই ঘটে গেল কাণ্ড- পরক্ষণেই ব্যাংকের মেসেজ এলো পাসওয়ার্ড চেঞ্জের…

আধুনিক এই সভ্য সমাজের বেশির ভাগ কাজ এখন সম্পূর্ণ সময় অনলাইনের মাধ্যমে!অনলাইনের মাধ্যমে কাজের কারণে যেমন বেঁচে যাচ্ছে সময় তেমনি বেঁচে যাচ্ছে কায়িক শ্রম!

তবে অনলাইনের মাধ্যমে যেমন সকল কাজ হয়ে গেছে অনেক সহজ ঠিক তেমনি আবার কিছু কাজে রয়েছে জামেলা! অনলাইন কাজের সবচেয়ে বড় সমস্যা প্রতারক চক্র! এরা বিভিন্ন ভাবে মানুষদের ধোকা দিয়ে নিজেদের সার্থ হাছিল করে!

এরকম এক প্রতারক চক্রের হাতে ধোকা খেতে গিয়ে বেঁচে যাওয়া যুবক সবাইকে সাবধান করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে! পাঠকদের উদ্দেশ্যে সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

সতর্কীকরণ বার্তাঃ গতকাল প্রায় দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ অচেনা নম্বর থেকে ফোন এলো। ফোন তুলতেই একজন আপু জানালো- খুব দুঃখিত ভাইয়া, আমি অনলাইনে ভ্যাকসিনের রেজিস্ট্রেশন করছিলাম, ভুল করে আমার মোবাইল নাম্বারটার জায়গায় আপনার নাম্বারটা দেওয়া হয়ে গেছে।

কারণ, আপনার আর আমার মোবাইল নাম্বারটায় অনেক মিল আছে। তাই ভুল করে ফেলেছি। একটু পরেই আপনার মোবাইলে একটা ওটিপি আসবে, প্লিজ ওটা মেসেজ বা রিং করে দেবেন। নতুন করে রেজিস্ট্রেশন করতে গেলে আবার ২৪ ঘন্টা অপেক্ষা করতে হবে।

আমার মোবাইলে একটু পরেই একটা ওটিপি এলো। সাথে সাথে অন্য আরেকটা নাম্বার থেকে আবার সেই ফোন- ভাইয়া ওটিপিটা এসেছে? প্লিজ আমাকে জানান।

আমি একটু বুদ্ধি খাটিয়ে বললাম আপনার যে নাম্বারটা আমার মত সেটা থেকে একটা কল করুন! জবাব এলো- ঐ নাম্বারটায় একদম ব্যালেন্স নেই, তাই এই নাম্বার থেকে কল করেছি। পরক্ষণেই আমার মোবাইলে ব্যাংকের মেসেজ এলো- “আপনি কি আপনার নেট ব্যাংকিং এর পাসওয়ার্ড চেন্জ এর জন্য রিকোয়েস্ট করেছেন?

তাহলে পাঠানো ওটিপিটা ব্যাবহার করুন, রিকোয়েস্ট না করে থাকলে নিচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করুন”। মাথা গরম হয়ে গেলো। সঙ্গে সঙ্গে প্রথম ও দ্বিতীয় নাম্বারে ফোন করলাম, জবাব এলো- সার্ভিস এরিয়ার বাইরে তাই যোগাযোগ সম্ভব নয়।এটা একটা নতুন ভাবে ব্যাংক জালিয়াতির প্রচেষ্টা। আমি দু’টো নাম্বারই ব্যাংকে জানিয়ে দিয়েছি। তাই, সবার কাছে অনুরোধ এই খবরটা যতজনকে পারবেন ফরোয়ার্ড করুন ও নিরাপদে থাকুন, ধন্যবাদ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *