বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইছেন আ’লীগ নেতারা!

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে স্থানীয় আওয়ামীগ নেতারা প্রচার-প্রচারণা ও ভোট চাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এলাকাবাসীর সাথে আলাপ করে জানা যায়,

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে ৫নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুর রহমান, ও নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের বিএনপির সাবেক সংসদ গিয়াস উদ্দিনের ছেলে গোলাম মোহাম্মদ সাদরিল।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য রমজান আলী ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য রমজান আলী, ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বদরুদ্দিন শেখ, সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা মতিন প্রধান,

আওয়ামী লীগ নেতা সিদ্দিক মাতবর, মতিউর রহমানসহ একটি আওয়ামী লীগের সিন্ডিকেট দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে সাবেক বিএনপির সংসদ সদস্য গিয়াস উদ্দিনের পক্ষে গোলাম মোহাম্মদ সাদরিলের পক্ষে ভোটারদারে দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা করছেন।

এতে ওই এলাকায় সাধারণ ভোটারদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছেন। ভোটাররা বলছেন, যারা আওয়ামী লীগে দলীয় অনুষ্ঠানে তাদের নিমন্ত্রণ করতেই তারাই আজ বিএনপির প্রার্থীর জন্য ভোট চাইছেন। আল আমিন নামে একজন সাধারণ ভোটার জানান,

করোনা মহামারির সময় আমাদের সহযোগিতা করেছেন সরকার। তার অনুদান আমাদের হাতে তুলে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা। নির্বাচন আশায় এদের একটি টিম আমাদের কাছে বিএনপির প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইছেন যা আমাদের ভাবিয়ে তুলছে।

করিমন আক্তার নামে আরো একজন ভোটার জানান, আমাদের ভোট দিতে জোরাজোরি করছে, কি করবো কিছুই বুঝতে পারছিনা। বিএনপির প্রার্র্থীর পক্ষে কেন ভোট চাইছেন, বিষয়টির সত্যতা জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগে নির্বাহীর সদস্য রমজান আলী কালের কণ্ঠকে জানান, আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি তার সাথেই আছি।

ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নিয়ে আমার কোনো মাথাব্যাথা নেই। আমি নিজেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলাম। মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নির্বাচন নিয়ে কাজ করছি আমি। আওয়ামী লীগ নেতা মতিউর রহমান জানান, সাবেক সংসদ সদস্য গিয়াস উদ্দিনের ছেলে দলমত নির্বিশেষে একজন ভালো মানুষ। তাই আমরা তার পক্ষে কাজ করছি।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী ইয়াসিন মিয়া জানান, একজন আওয়ামী লীগ নেতা হয়ে বিএনপির পক্ষে কাজ করে। বিষয়টি আমি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের জানাব। দলীয় নিয়ম না মেনে যারাই নির্বাচনে কাজ করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসানাত শহীদ বাদল জানান, দলীয় শৃংখলা ভেঙে যারাই কাজ করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *