খালেদা জিয়াকে নিয়ে যা বললেন তৈমুর

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বলেছেন,

আমার চেহারায় ধানের শীষ ভেসে উঠে। আমার চেহারায় ৭৭ বছর বয়সী এক নেত্রীর চেহারা ভেসে উঠে, যিনি এ রাষ্ট্রের জন্য-গণতন্ত্রের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন। সেই নেত্রীকে আজ অসুস্থ অবস্থায় মৃ’ত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার।

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেলে বন্দরের কদমরসূল দরগাহে দোয়া ও জিয়ারতের পর এসব কথা বলেন তিনি। এসময় তার পাশে ছিলেন আওয়ামীলীগের সাবেক সংসদ সদস্য ও গত নির্বাচনে নাগরিক ঐক্যের প্রার্থী এসএম আকরাম।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি আতাউর রহমান মুকুল, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপু, বন্দর থানা বিএনপির সভাপতি হাজী নুরুদ্দিন, যুবদলের সভাপতি আমীর হোসেন প্রমুখ।

খালেদা জিয়াকে নিয়ে তৈমুর আলম খন্দকার আরও বলেন, আমার চেহারায় ভেসে উঠে একজন নি’র্যাতিত মানুষের চেহারা যিনি দেশের গণতন্ত্রের জন্য দলের কর্মসূচী পালন করতে গিয়ে বার বার পুলিশের নি’র্যাতনের শিকার হয়েছি। আজ আমার পাশে সবাই এসেছেন।

এই নির্বাচনে যদি কোন ধরনের কা’রচুপি সরকার করে তাহলে এই নারায়ণগঞ্জ থেকে শুরু হবে সরকারের পতনের চূড়ান্ত আন্দোলন। এসময় সেখানে উপস্থিত সবার উদ্দেশে এসএম আকরাম বলেন, শেখ হাসিনা জানেন সুষ্ঠু নির্বাচন দিলে তার কি অবস্থা হবে, আর তাই গত নির্বাচনে কি হয়েছে আপনারা জানেন।

আমি তৈমুর আলম খন্দকারের পক্ষে এসেছি, আরো আসবো, সবাই আসবে। তিনি সকলের প্রার্থী। মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া এই সরকারের বি’রুদ্ধে আমরা এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। তৈমুরের পাশে আমরা আছি, নগরবাসী আছে। পরে তৈমুর বলেন, এটা জনগণ বনাম একনায়কতন্ত্রের আন্দোলন। একনায়কতন্ত্র থেকে মানুষ বাঁচতে চায়। নারায়ণগঞ্জের মানুষ পরিবর্তন চায়, তারা ট্যাক্সের বোঝা থেকে বাঁচতে চায়, নাগরিক অধিকার চায়। বাংলাদেশের মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার প্রতীকী আন্দোলন এই নারায়ণগঞ্জের সিটি নির্বাচন।

তিনি আরও বলেন, সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দরা নেমে গেছে। আমাদের চেহেরাটাই তো ধানের শীষ। আমাদের চেহারায় সেই নারীর প্রতিচ্ছবি আছে, যিনি তিনবারের প্রধানমন্ত্রী হয়েও বিনা চিকিৎসায় কারারুদ্ধ আছেন। জনগণ আমাদের পাশে আছে। নির্বাচন কমিশন যদি দ্বিমুখী আচরণ করে তাহলে সরকার ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাবে। কারণ জনমতের কাছে কেউ টিকতে পারে না।

এস এম আকরামের সমর্থন প্রসঙ্গে তৈমুর বলেন, জতীয় নির্বাচনের প্রেক্ষাপট ও স্থানীয় নির্বাচনের প্রেক্ষাপট আরেকটা। সময় মতো আপনারা দেখবেন কে কে এখানে যোগ দিচ্ছে। আপনারা আজ দেখছেন যারা আমার দলের এমপি না তারাও তো এখানে উপস্থিত আছেন। সময় মতো আপনারা আরও দেখতে পারবেন। নারায়ণগঞ্জের নাগরিকদের মধ্যে ঐক্য গঠিত হচ্ছে। সে নাগরিকদের কমিটি হবে। সেই কমিটিই সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা করবে।

তিনি বলেন, আমার দলের সাবেক সংসদ সদস্য গিয়াসউদ্দিন গতকাল এখানকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। তিনিও আমাদের সঙ্গে আসবেন তবে সরকার তার বি’রুদ্ধে মামলা সংক্রান্ত ঝামেলা করায় তিনি এখনো নামতে পারছেন না। আমি এখানে সাবেক বিএনপি সংসদ সদস্য আবুল কালামের সঙ্গে আলোচনা করে এসেছি। তিনি অসুস্থ তাই আজ আসেননি, তিনিও আমার সঙ্গে আসবেন। তার সঙ্গের সবাই এখানে আছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *