নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে বড় ভূমিকা রাখবে যারা, জানা গেল চাঞ্চল্যকর তথ্য

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার নতুন ভোটার ৪২ হাজার। এরাই এবারের ভোটে বড় ভূমিকা রাখতে যাচ্ছেন। তাই প্রার্থীদের ভাবনায় জায়গা করে নিয়েছেন নতুন ভোটাররা। আর এই প্রজন্মের চাওয়া, মাদক ও যানজটমুক্ত নগরসহ শিক্ষা ও বিনোদনমুখী নগর গড়ে তুলবেন এমন মেয়র ও কাউন্সিলর।

আগামী ১৬ জানুয়ারি হতে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। আর এ নিয়ে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী নতুন ও তরুণ ভোটাররা। কষছেন নানান হিসাব-নিকাশ। ৫ লাখ ১৮ হাজার ৩৫১ জন ভোটারের মধ্যে ৪২ হাজার ৪২০ জন নতুন। এই নতুন ভোটাররাই পারেন নির্বাচনের হিসাব-নিকাশ বদলে দিয়ে যে কারও পাল্লা ভারী করতে।

নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, উদ্যোক্তা তৈরির পাশাপাশি বর্তমান রাজনীতির সংস্কার করবেন এমন প্রার্থীকেই নির্বাচিত করতে চান তরুণরা। তরুণ ভোটারদের মন জয় করতে নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন প্রার্থীরা। আওয়ামী লীগের প্রার্থী জোর দিচ্ছেন তরুণদের কর্মসংস্থানে। আর বিনোদনমুখী নগর গড়ে তোলার আশ্বাস স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকারের।

এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে ইভিএমে। এদিকে, নির্বাচন সামনে রেখে মেয়র পদে দুই প্রার্থী নৌকা ও হাতি প্রতীকের ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছেন। ভোটারদের কাছে গিয়ে জনগণের সেবা করার সুযোগ চেয়ে ভোট চাচ্ছেন তারা। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতিও।

গোটা নগরী এরই মধ্যে প্রচারণার পোস্টারে ছেয়ে গেছে। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার অভিযোগ করেছেন তার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার। অভিযোগ নাকচ করে আওয়ামা লীগ মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভী দাবি করেন, নির্বাচনী প্রচারে সবাই সমান সুযোগ পাচ্ছে। এদিকে, নির্বাচনের বাকি আর মাত্র আট দিন। সময় কম থাকায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

প্রতিদিন সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে প্রচারণা। উচ্চ শব্দে প্রচারণা চালিয়ে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে অনেকের বিরুদ্ধে। তবে এখন পর্যন্ত কারো বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি নির্বাচন কমিশন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *