নারীরা তৃপ্তির জন্য পুরুষের কাছে যা আশা করে

না’রী হোক বা পু’রু’ষ হোক সবাই তৃ’’প্তি আশা করেন। সবাই চাইলেও সে পূরণ হয়না সবার। পু’রু’ষরা সহজেই তৃ’’প্ত ি পেলেও, ম’হিলাদের ক্ষেত্রে এই সন্তু’ষ্টি সহজ নয়৷ ম’হিলাদের সন্তু’ষ্ট করতে পু’রু’ষরা কম কসুর করেন না৷

কিন্তু প্রশ্ন হল, তৃ’’প্ত িতে বলতে ম’হিলারা ঠিক কী বোঝেন? পু’রু’ষদের ধারণার স’ঙ্গে মে’য়েদের ভাবনার ফারাক কোথায়, তা জানতেই সম্প্রতি এক সমীক্ষা হয়েছিল৷ সেখানেই জানা গেল তৃ’’প্ত িতে ম’হিলারা ঠিক কী চান৷

প্রায় ৬০০ জন ম’হিলার উপর সমীক্ষা চা’লানো হয়েছিল৷ তাঁদের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, তাঁরা তৃ’’প্ত ির জন্য পু’রু’ষের কাছে ঠিক কী প্র’ত্যাশা করেন৷

উত্তর যা পাওয়া গেল, তা জানা পু’রু’ষদের জন্য অত্যন্ত জরুরি৷ কেননা এই উত্তরগু’’লির মধ্যেই না’রীদের সু’খী করার চা’বিকাঠি লুকিয়ে রয়েছে৷যেমন এক ম’হিলা জানিয়েছেন,

তাঁর স’ঙ্গী নিজের সন্তু’ষ্টির পরেও থামান না৷ বরং তিনি কতক্ষণে সন্তু’ষ্ট হবেন তার জন্য প্রক্রিয়া চা’লিয়ে যান৷ এক ম’হিলা জবাব দিচ্ছেন, তৃ’’প্ত ির জন্য ভালবাসা আবশ্যিক নয়৷

আরও পড়ুন : শ্বশুর বাড়ি এসে কোটি টাকার লটারি পেয়ে ভাগ্য ফিরল যুবকের। শ্বশুরবাড়ি গিয়ে লটারি জিতে কোটিপতি হয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল পুরনিগমের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা শ্রীধর রুইদাসের, যিনি পেশায় নিরাপত্তাকর্মী।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার জামুড়িয়ায় এ খবর চাউর হতে নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করেছেন তিনি। পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল পুরনিগমের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা শ্রীধর রুইদাস।নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করেন এক বেসরকারি সংস্থায়। তবে মাঝে মধ্যেই লটারির টিকিট কাটার ঝোঁক ছিল তার। কিন্তু কোনোবারই ভাগ্য সহায় হয়নি শ্রীধরের।অবশেষে ভাগ্য খুলল তার। রাতারাতি ধনী হয়ে উঠলেন জামাই। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে শ্বশুরবাড়ি এসে স্থানীয় বাজারে লটারির টিকিট কাটেন শ্রীধর। দুপুর দেড়টা নাগাদ জানতে পারেন, লটারির প্রথম পুরস্কার এক কোটি টাকা পেয়েছেন তিনি। তবে তারপরও টিকিট কাটা থামাননি। বিকেলে ফের টিকিট কাটেন। কাকতালীয় ভাবে তাতেও সফল হন জামাই। জেতেন কয়েক লাখ টাকা।পর পর দুবার লটারি জিতে আনন্দে আত্মহারা হয়ে শ্বশুরবাড়ির সবাইকে খবরটি জানান জামাই। আস্তে আস্তে খবরটি ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়। অবশেষে নিরাপত্তার অভাব বোধ করে জামুড়িয়া থানায় যান শ্রীধর। পুলিশ তার যাবতীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবে বলে জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *