ফাঁকা বাড়িতে ‘প্রেমিকাকে ডেকে আনে ছেলে, বাড়ি ফিরে সন্ধ্যায় জানালা দিয়ে উঁকি মেরে হতবাক হয়ে যায় মা!

গাজীপুরের কালীগঞ্জে প্রেমিকাকে হ’ত্যার পর আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন প্রেমিক। বুধবার (৬ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে পুলিশ প্রেমিকের বাড়ি থেকে ওই দুজনের লা’শ উ’দ্ধার করে।

ঘ’টনাটি ঘটেছে উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের সাতানীপাড়া গ্রামে। খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন ওই বাড়িতে ভিড় জমায়।প্রেমিক হৃদয় গোমেজ (২৫) সাতানীপাড়া গ্রামের মৃ’ত সমর গোমেজের ছেলে।

প্রেমিকা ইভানা রোজারিও (২২) একই উপজেলার তুমুলিয়া ইউনিয়নের বান্দাখোলা এলাকার মৃ’ত স্বপন রোজারিওর মেয়ে। হৃদয় ব্র্যাকে এবং ইভানা একটি ক্লিনিকে কাজ করতেন।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য কাওসার আলম জানান, হৃদয় ও ইভানার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গতকাল সকালে হৃদয়ের মা ও চাচা জমি রেজিস্ট্রি করতে কালীগঞ্জ সাবরেজিস্ট্রি অফিসে যান। হৃদয় বাড়িতে ছিলেন।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাড়ি ফিরে তাঁর মা দেখেন ঘর অন্ধকার। দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। ডাকাডাকি করেও হৃদয়ের সাড়া না পেয়ে জানালা দিয়ে উঁকি মেরে দেখেন মেঝেতে ছেলে ও তাঁর প্রেমিকার র’ক্তাক্ত লা’শ পড়ে আছে। এরপর তাঁর চিৎকারে গ্রামের লোকজন এগিয়ে আসে।

পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে রাত ১০টার দিকে ঘরের বারান্দার গ্রিল ও দরজা ভে’ঙে ভেতরে প্রবেশ করে। ধারণা করা হচ্ছে, সকালে হৃদয়ের মা বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে কোনো এক সময় প্রেমিকা ইভানা হৃদয়ের কাছে আসেন।

পরে কোনো এক সময় তাঁকে হত্যা করে নিজেও আত্মহত্যা করেন হৃদয়।থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান, ইভানার গলা কাটা আর হৃদয়ের পেটে অনেকগুলো ধারালো অ’স্ত্রের আঘাত রয়েছে। মৃ’ত অবস্থায় তাঁর হাতে চাকু ধরা ছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে,কোনো ক্ষোভ থেকে ইভানার গলায় ছুরি চালিয়ে হত্যার পর হৃদয় নিজের পেটে চাকু মেরে আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় অন্য কেউ জড়িত কি না তা-ও ত’দন্ত করে দেখা হচ্ছে। লা’শ উ’দ্ধারের পর রাতেই ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *