বরের সঙ্গে সেলফি তোলা নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১১

নোয়াখালীর হাতিয়ায় বরের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে সংঘর্ষে কনের মাসহ উভয় পক্ষের ১১ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাতে নোয়াখালীর হাতিয়া পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে আহম্মদ মিয়া বাজারের পাশে কনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এরমধ্যে বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল পর্যন্ত কনের মা কুলসুমা বেগমের জ্ঞান ফেরেনি। আহতরা সবাই বর-কনের পারিবারিক আত্মীয়।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৩ মাস পূর্বে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কামাল উদ্দিনের ছেলে মো. মিলন ও কনে পৌরসভা ৭নং ওয়ার্ডের রাশেদ উদ্দিনের মেয়ে রাশেদা বেগম এর। বুধবার বরযাত্রী আসে কনের বাড়িতে।

বরের ভাই মিরাজ জানান, উভয় পক্ষের আন্তরিকতার মধ্যেই খাওয়া দাওয়া শেষ হয়। বিদায় নেওয়ার সময় বর কনেকে একই মঞ্চে আনা হয়। এ সময় বরের সাথে সেলফি তোলা নিয়ে নারীদের মধ্যে কথা কাটাকাটি নিয়ে সংঘর্ষ বাধে। পরে কনে পক্ষের কিছু উত্তেজিত লোকজন বর পক্ষের লোকজনের ওপর হামলা করে।

এ ব্যাপারে হাতিয়া পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দিদারুল ইসলাম খান বলেন, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে লোকজন নিয়ে কনের বাড়িতে যাই। পরে উভয় পক্ষকে শান্ত করে আহতদের হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।

এ বিষয়ে হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *