বাসররাতে স্ত্রীকে একা না পেয়ে বরের আ’ত্মহ’ত্যা!

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে নববধূকে বাসরঘরে রেখে গলায় ফাঁ’স দিয়ে আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন এক যুবক। তার নাম বাবুল হোসেন (১৯)।শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর)

ভোররাতে উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের চরতিস্তাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নি’হত বাবুল হোসেন একই এলাকার সফিজুল ইসলামের ছেলে।

নি’হতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বাবুল হোসেন শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের দিনবাজার এলাকার সবার উদ্দিনের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিনকে বিয়ে করে তার বাড়িতে নিয়ে আসেন।

পরে কনের সাথে আসা দাদি, বরের দুলাভাই ও দুটি বাচ্চাসহ বাবুল তার স্ত্রীকে নিয়ে একই ঘরে ঘুমায়। এ সময় বাসর রাতে ঘরে থাকা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বাবুলের মনোমালিন্য হয়।

এদিকে বাবুল রাতের কোনো এক সময় সবার অগোচরে রান্নাঘরে গিয়ে গলায় ফাঁ’স দিয়ে আ’ত্মহ’ত্যা করেন। শনিবার ভোররাতে পরিবারের লোকজন বাবুলকে হঠাৎ রান্নাঘরে ঝু’লন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করেন এবং সবাই মিলে তার মরদেহ নামান।

এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ম’রদে’হের প্রাথমিক সুরতহাল করে। পরে ম’রদে’হ উ’দ্ধার করে ম’য়নাতদ’ন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের ম’র্গে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে দেবীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাকিলুর রহমান বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর পরিবারের লোকজনের কথাবার্তা ত্রুটিপূর্ণ ও ফাঁ’স লাগানোর স্থানটি নিয়ে সন্দেহজনক মনে হয়। প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ম’রদেহ ম’য়নাতদ’ন্তের জন্য ম’র্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি তদ’ন্ত করা হচ্ছে।দেবীগঞ্জ থানার ওসি জামাল উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় নি’হতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ নেই। ফলে থানায় একটি ইউডি মা’মলা করা হয়েছে। তবে আমরা ঘটনাটি নিয়ে ত’দন্ত করছি। ম\য়নাত’দন্তে’র রিপোর্ট আসলে মৃ’ত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *