শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগেই সরকারকে লিগ্যাল নোটিশ

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেওয়া হচ্ছে দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর পর সশরীরের শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে অংশগ্রহণ করতে পারবে।

এদিকে মন্ত্রণালয়ের এমন সি’দ্ধান্তের পর করোনা নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত প্রথম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত অনলাইলে নিয়মিত পাঠদান করতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে সরকারকে।

বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা সচিব, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা সচিব,কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা সচিবসহ ছয়জনকে লিগ্যাল নোটিশটি দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী খন্দকার হাসান শাহরিয়ার।

এরপরও আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে যদি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতেই হয় তাহলে স’প্তাহে একদিন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সশরীরে পাঠদানের অনুরোধ জানানো হয়েছে নোটিশে। এছাড়া চলতি বছর থেকে পিএসসি ও জেএসসি পরীক্ষা বাতিল করে গণবিজ্ঞপ্তি জারির কথা বলা হয়েছে নোটিশে।

নোটিশে আরও বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কারণে যদি কোনো শিক্ষার্থী,অভিভাবক, শিক্ষক কিংবা কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আ’ক্রান্ত হন তাহলে সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ এবং প্রাণহানির ঘটনা ঘটলে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ

দেওয়াসহ ওই পরিবারের দায় সরকারকে বহন করার গণবিজ্ঞপ্তি প্রচার ও প্রকাশ করতে পদক্ষেপ নিতে হবে। সাত দিনের মধ্যে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া অনুরোধ জানিয়ে বলা হয়েছে, অন্যথায় হাইকোর্টে রিট করা হবে।

এদিকে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কীভাবে ক্লাস নেওয়া হবে তার গাইডলাইন প্রকাশ করে রুটিন তৈরির নির্দেশ দিয়েছে সরকার। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বা’ক্ষরিত আদেশ বলা হয়েছে, সপ্তাহে প্রতিদিন নি’র্দিষ্ট শ্রেণিতে দুটি করে ক্লাস ধরে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে রুটিন প্রণয়ন করতে হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *