২০ দলীয় জোটের সঙ্গে বৈঠক শেষে খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

চিকিৎসা শেষে বাসায় ফেরার মাত্র ছয় দিন পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গত ১৩ নভেম্বর ফের হাসপাতালে ভর্তির পর সিসিইউতে রাখা হয়েছে।

এরপর তাকে (খালেদা জিয়া) বিদেশে নেওয়ার অনুমতি চেয়ে তার পরিবার আবারও সরকারের কাছে চিঠি দিয়েছে। বিএনপির পক্ষ থেকে বিভিন্ন কর্মসূচিও দেওয়া হচ্ছে।

বেগম জিয়াকে বিদেশে না পাঠালে পদত্যাগের হুমকিও দিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্যরা। সর্বশেষ খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে রোববার (২১ নভেম্বর) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে দেখা করেছেন ২০ দলীয় জোটের একটি প্রতিনিধি দল।

বৈঠক শেষে আসাদুজ্জামান খান সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপিসহ ২০ দলীয় নেতারা দেখা করতে এসেছিলেন। তারা খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার জন্য আবেদন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদনটি পাঠানোর অনুরোধ করে গেছেন। আমরা এখন আমাদের প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তা পাঠিয়ে দেব।

তিনি বলেন, বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে কর্মরত একজন কর্মকর্তা এখানে এসেছিলেন। তিনিও বললেন, বিদেশি চিকিৎসক এলে এখানে তার (খালেদা জিয়া) চিকিৎসা হতে পারে। এগুলো জানার পরেও তারা আবেদন করেছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইচ্ছা করলেই খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠাতে পারেন তারা (বিএনপি) এটা বলে গেলেও আইনের ভাষায় এর কোনো সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে যাওয়ার অনুমতির দাবিতে বিএনপি যেকোনো কর্মসূচি পালন করতে পারে, সেখানে আমাদের কিছু বলার নেই। তবে মানুষের জানমাল রক্ষার জন্য, সম্পদ রক্ষার জন্য আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সবসময় প্রস্তুত থাকবে। তারা যদি ওই জায়গায় বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে কিংবা জানমাল বিনষ্ট করার প্রচেষ্টা নেয় তাহলে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *