চায়ের দোকানে বসা নিয়ে ছাত্রলীগের সং’ঘর্ষ শুরু

চায়ের দোকানে বসা নিয়ে ছাত্রলীগের সং’ঘর্ষ শুরু

বাংলাদেশ: ঢাকা কলেজের সামনে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ চলছে। এর মধ্যে একটি গ্রুপ ঢাকা কলেজের, আরেকটি সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের।

চায়ের দোকানে বসা নিয়ে বুধবার (৩০ মার্চ) রাত সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনার সূত্রপাত হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের একাধিক নেতা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জসিম উদ্দিন জানান, সন্ধ্যায় সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের পার্শ্ববর্তী কলেজ স্ট্রিট রোডে চায়ের দোকানে বসাকে

কেন্দ্র করে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের চার কর্মীর সঙ্গে টিচার্স ট্রেনিং কলেজ ছাত্রলীগের কর্মীদের কথা কাটাকাটি শুরু হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে

ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের চার কর্মীকে মারধর করেন টিচার্স ট্রেনিং কলেজ ছাত্রলীগের কর্মীরা। এ ঘটনার জেরেই পরে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয় বলে জানান তিনি।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রেখেছে পুলিশ। সর্বশেষ রাত ১০টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছিল।

তবে পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি), নিউ মার্কেট থানার ওসি এবং নিউ মার্কেট থানার কোনো পুলিশ কর্মকর্তা ঘটনার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে দুই দল শিক্ষার্থীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হঠাৎ করে বেশ কয়েকটি ককটেলের শব্দ শুনে লোকজন দিগ্বিদিক ছোটাছুটি শুরু করে। অল্প সময়ের মধ্যেই সায়েন্স ল্যাব থেকে নীলক্ষেত মোড় পর্যন্ত সড়কের দুপাশ ফাঁকা হয়ে যায় এবং ছাত্রদের দুগ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়।

নিউ মার্কেট থানার ডিউটি অফিসার মো. মেহেদী হাসান জানান, ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ও টিচার্স ট্রেনিংয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। ঘটনাস্থলে ওসি স ম কাইয়ুম রয়েছেন। তিনি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। নিউ মার্কেট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সাহেব আলী বলেন, ঘটনার বিস্তারিত এখনো আমরা জানতে পারিনি। সংঘর্ষ চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ ডাকা হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.