রমজানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে যা জানাল হাইকোর্ট

রমজানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে যা জানাল হাইকোর্ট

খবর: আসন্ন রমজান মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা কিংবা বন্ধ রাখার বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করতে পারেন

না বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট। বুধবার (৩০ মার্চ) বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মহিউদ্দিন

শামীমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ কথা জানান। এর আগে রমজানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার বিষয়ে করা রিটের শুনানি হয়।

আদালতে রিট আবেদনের শুনানির জন্য ছিলেন রিটকারী আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। গত ২৭ মার্চ আসন্ন রমজান মাসে দেশের সব

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ রিটটি করেন।

একইসঙ্গে রিট আবেদনে ২০ রমজান পর্যন্ত প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয়। নির্দেশনার পাশাপাশি পবিত্র রমজান

মাসের ২০ তারিখ পর্যন্ত সরকারের প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং রমজান মাসে বাংলাদেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কেন নির্দেশনা দেওয়া হবে না, তা জানতে রুল জারির আরজি জানানো হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়। রিট আবেদনে বলা হয়, দেশে এখন ভয়াবহ তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সীমাহীন গরমে মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় সব প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা রাখা অবৈধ এবং এর আগে সবসময় পবিত্র মাহে রমজানে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল।

তাই এ অবস্থায় স্কুল খোলা না রাখার নির্দেশনা চাইছি। যেহেতু রমজান মাসে শিক্ষকরা রোজা রেখে ক্লাসে লেখাপড়া শেখানোর বিষয় মনোযোগী হতে পারেন না। এছাড়া করোনার প্রকোপ এখনও যায়নি; এ কারণে স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশনা চাওয়া হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published.