মাঝ আকাশে ২ বিমানের সংঘর্ষ, নিহত…

মাঝ আকাশে ২ বিমানের সংঘর্ষ, নিহত…

আন্তর্জাতিক: দক্ষিণ কোরিয়ায় বিমানবাহিনীর দুটি প্রশিক্ষণ বিমানের মাঝ আকাশে সংঘর্ষ হয়েছে।

এতে তিন পাইলট নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও একজন। শুক্রবার সকাল ১০টা ৩৭ মিনিটে প্রশিক্ষণ

চলাকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর রয়টার্সের। দেশটির দক্ষিণ-পূর্ব শহর সাচিওনের বিমানঘাঁটি কেটি-১ বিমানঘাঁটি থেকে প্রায়

৬ কিলোমিটার দক্ষিণে ঘটে এ দুর্ঘটনা। সেখানে ৩০ জনের বেশি দমকলকর্মী ও উদ্ধারকর্মী অনুসন্ধান কার্যক্রম চালাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

দেশটির বিমানবাহিনীর বরাত দিয়ে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, এ ঘটনায় তিনজন মারা গেছেন এবং একজন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া দুর্ঘটনা ও এর ক্ষতির কারণ নির্ধারণের জন্য একটি দল গঠন করা হয়েছে বলেও জানায় তারা।

আরোও পড়ুন: এক মাস আগে পরিকল্পনা করে রাজধানীর মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপুকে হত্যা করা হয়। ওই বৈঠকের সমন্বয় করেন সাবেক যুবলীগ নেতা বোচা বাবু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি মুসা। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) তদন্ত সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তা এসব তথ্য জানিয়েছেন। তদন্ত সংশ্লিষ্ট ডিবি সূত্র জানিয়েছে, রাজধানীর গোড়ান এলাকার একটি ভবনে

এক মাস আগের ওই পরিকল্পনায় স্থানীয় বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা, পলাতক শীর্ষ সন্ত্রাসী প্রকাশ-বিকাশ গ্রুপ, জিসান গ্রুপ, ফ্রিডম মানিক গ্রুপ ও ইখতিয়ারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।ওই সভার সমন্বয়কারী ছিলেন বোচা বাবু হত্যার মামলার অন্যতম আসামি মুসা। মূলত বোচা বাবু হত্যাকে কেন্দ্র করে টিপুর সঙ্গে বিরোধের পাশাপাশি এলাকার রাজনীতি, চাঁদাবাজি ও ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণ করতে অনেক ব্যক্তির স্বার্থে টিপুকে হত্যা করা হয়। টিপুকে হত্যার সমন্বয় করে মুসা এরই মধ্যে দেশ থেকে পালিয়েছেন বলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ওই সূত্র আরো জানিয়েছে, পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী টিপুকে হত্যার জন্য দুটি কিলার গ্রুপ বাছাই করা হয়। এর মধ্যে একটি গ্রুপের শ্যুটার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন মাসুম মোহাম্মদ আকাশ ও তার সহযোগী এবং আরেকটি গ্রুপ ব্যাকআপ হিসাবে ঘটনাস্থলে ছিলেন। সেই গ্রুপের অস্ত্রধারীর অস্ত্র থেকেও গুলি হয়েছে বলে আলামত পাওয়া গেছে। তবে সেই গ্রুপের শ্যুটার কে সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। ডিবির এক কর্মকর্তা বলেন, এর আগে ক্যাসিনো কাণ্ডের ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের প্রভাবশালী বেশকয়েকজন নেতা গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে রয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.