টিপকাণ্ড নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট দিয়ে বিপাকে সেই পুলিশ কর্মকর্তা

টিপকাণ্ড নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট দিয়ে বিপাকে সেই পুলিশ কর্মকর্তা

বাংলাদেশ টিপকাণ্ডে সারা দেশে উত্তেজনার মধ্যেই ফেসবুকে বিতর্কিত পোস্ট করেছেন সিলেট জেলা পুলিশের আদালত পরিদর্শক লিয়াকত আলী। এ ঘটনায় তাকে ক্লোজ করেছেন পুলিশ সুপার (এসপি)।

সেই সঙ্গে স্ট্যাটাসের বিষয়টি তদন্তের জন্য তিন সদস্যের কমিটিও গঠন করা হয়েছে। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) লুৎফুর রহমান।

তিনি বলেন, এসপি ফরিদ উদ্দিন আজ সারাদিন অন্য একটি ঘটনার তদন্তে জৈন্তাপুর ছিলেন। রাতে তিনি স্ট্যাটাসের বিষয়টি জেনে লিয়াকতকে ক্লোজ করার নির্দেশ দেন।

সেই সঙ্গে তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করেন। ওই কমিটিকে ৩ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। পরিদর্শক লিয়াকত তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লেখেন, প্রসঙ্গ: টিপ নিয়ে নারীকে হয়রানি।

ফালতু ভাবনা : (18+) টিপ নিয়ে নারীকে হয়রানি করার প্রতিবাদে অনেক পুরুষ নিজেরাই কপালে টিপ লাগাইয়া প্রতিবাদ জানাচ্ছে। কিন্তু আমি ভবিষ্যৎ ভাবনায় শংকিত। বিভিন্ন শহরে অনেক নারীরা

যেসব খোলামেলা পোশাক পরে চলাফেরা করেন তার মধ্যে অনেকেরই ব্রায়ের ওপর দিকে প্রায় অর্ধেক আনকভার থাকে। পাতলা কাপড়ের কারণে বাকি অর্ধেকও দৃশ্যমান থাকে। এখন যদি কোনো পুরুষ এইভাবে ব্রা পরার কারণে কোনো নারীকে হয়রানি করে তবে কি তখনও আজকে কপালে টিপ লাগানো প্রতিবাদকারী পুরুষগণ একইভাবে ব্রা পড়ে প্রতিবাদ করবেন?

তার এমন পোস্টে সিলেট জুড়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। অবস্থা বেগতিক দেখে ওই পুলিশ কর্মকর্তা নিজের ফেসবুক আইডি থেকে পোস্টটি ডিলিট করে দেন। পরে অভিযুক্ত লিয়াকত আলী বলেন, আমি কথা বলেছি প্রতিবাদের ধরন নিয়ে। পুরুষ কপালে টিপ পরে প্রতিবাদ করবে কেন? মূলত এই বিষয়টিকে মানতে পারিনি বলেই এমন পোস্ট করেছি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.