জাতীয় নির্বাচনে ধাপে ধাপে ভোটগ্রহণের প্রস্তাব, যা জানা গেল

জাতীয় নির্বাচনে ধাপে ধাপে ভোটগ্রহণের প্রস্তাব, যা জানা গেল

ইসিকে সংবাদিকরা আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধাপে ধাপে ৩০০ আসনের ভোটগ্রহণ নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন।

বুধবার (৬ এপ্রিল) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে ইসি আয়োজিত সংলাপে অংশ নিয়ে সাংবাদিকরা এ সুপারিশ করেন।

সংলাপে ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন বলেন, বিভাগভিত্তিক জাতীয় সংসদ নির্বাচন করা যেতে পারে। তাহলেই দেখা যাবে আওয়ামী লীগ কয়টি সিট পায়, আর বিএনপি কয়টি সিট পায়।

ইসিকে উদ্দেশ্য করে ইত্তেফাক সম্পাদক বলেন, আপনারা শতভাগ ন্যায্য ভোট করবেন বলে আশা করছি না। তবে ৫০ শতাংশ সাফল্য পেলে স্যালুট জানাব। আগামী নির্বাচন ভালোভাবে না হলে খুনোখুনি হবে। মেশিনগান নিয়ে নামবে।

তাসমিমা হোসেন আরও বলেন, ডিসি-এসপিকে বললে এখন আর কোনো কাজ হয় না। আমরা যাচ্ছি কোথায়? লিডারশিপের অভাব প্রতিটি ক্ষেত্রে। আমরা এখন ওপরের দিকে তাকিয়ে থাকি। প্রথমে গণভবন, তারপর আল্লাহর দিকে।

এ সময় তাসমিমা হোসেনের বক্তব্য সমর্থন করে প্রথম আলো পত্রিকার যুগ্ম সম্পাদক সোহরাব হোসেন ইসিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, সারাদেশে এক দিনে নির্বাচন না করে ভাগ ভাগ করে নির্বাচন করতে পারেন।

এদিকে ইসির তৃতীয় দফা সংলাপে ২৩ সম্পাদকসহ ৩৪ জন সাংবাদিককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তবে ১১ জন ইসির এই আমন্ত্রণে সাড়া দেননি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.