যে মামলায় বিএনপি নেতা ইশরাককে গ্রেপ্তার দেখাল পুলিশ

যে মামলায় বিএনপি নেতা ইশরাককে গ্রেপ্তার দেখাল পুলিশ

দেশজুড়ে: রাজধানীর মতিঝিল থেকে আটকের পর বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেনকে দুই বছর আগের একটি গাড়ি

ভাঙচুর মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। বুধবার (৬ এপ্রিল) বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন পুলিশের মতিঝিল বিভাগের এডিসি এনামুল হক মিঠু।

তিনি বলেন, ইশরাক হোসেন গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে ২০২০ সালের একটি মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি। তাকে আমরা বিভিন্ন জায়গায় খুঁজেছি। আজ

তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে, বুধবার সকালে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে লিফলেট বিতরণের সময় মতিঝিল এলাকা থেকে ইশরাককে আটক করা হয়।

ইশরাক হোসেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন।

আরোও পড়ুন: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের গত নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইশরাক হোসেনকে রাজধানীর মতিঝিল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।আজ বুধবার দুপুরে ইশরাকের ব্যক্তিগত একান্ত সচিব সুজন মাহমুদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে মতিঝিল এলাকায় লিফলেট বিতরণ করার সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জাতীয় শ্রমিক দল এই কর্মসূচির আয়োজন করেছিল। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ তাকে তুলে নেয়। মতিঝিল থানার ডিউটি অফিসার ও পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ফরহাদ মাতব্বর ডেইলি স্টারকে তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে কোন মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে তিনি কিছু জানাতে পারেননি। বিএনপি নেতারা জানান, লিফলেট বিতরণের এক পর্যায়ে পুলিশের একজন কর্মকর্তা এসে বলেন—আপনার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট আছে। আপনি এখানে এসেছেন কীভাবে, জামিন আছে আপনার? জামিন আছে জানানোর পরে ওই পুলিশ কর্মকর্তা কাগজ দেখতে চান। ইশরাক জানান, জামিনের কাগজ তার সঙ্গে নেই। সে সময় পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, জামিনের কাগজ সঙ্গে না থাকলে ওপেন বের হতে পারেন না কি? বলেই পিকআপ ভ্যানে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.