ফেরাউনের কিছু বংশধর বাংলাদেশে আছে: ওমর সানী


বিশ্বের বেশ কিছু মুসলিম দেশে পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপণ্যের দাম কমিয়ে আনা হয়। যেন রমজানে কারও কষ্ট করতে না হয়। তবে বাংলাদেশে যেন চিত্রটা ভিন্ন।

রমজান এলে অসাধু ব্যবসায়ীরা জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে দেয়। সাধারণ মানুষের হাতের নাগালের বাইরে চলে যায় নিত্যপণ্যের দাম। রমজানে ইফতারে থাকে বিভিন্ন ধরণের ফল।

এর মধ্যে একটি হলো তরমুজ। কিন্তু রাজধানীসহ বেশ কিছু জায়গায় তরমুজ বিক্রি হয় কেজি দরে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে সমালোচনা হয়েছে।

এরপরেও কেজি মাপে তরমুজ বিক্রি বন্ধ হয়নি। এবার এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক ওমর সানী।

কেজি মাপে এভাবে তরমুজ বিক্রি নিয়ে ক্ষুব্ধ ‘কুলি’ খ্যাত নায়ক। ফেসবুকে এক পোস্ট দিয়ে তিনি লিখেন, ফেরাউনের প্রথম ব্যবসা ছিলো তরমুজের ব্যবসা।

ফেরাউন তরমুজ পিস হিসেবে কিনে এনে দাঁড়ি পাল্লায় মেপে বিক্রি করতেন। মেপে অনেক দামে বিক্রি করার কারণে, সেই সময় সাধারণ মানুষ তরমুজ কিনে খেতে পারতেন না।

ওমর সানী আরও লিখেন, আজ থেকে তিন হাজার বছর আগে ফেরাউন ঠিকই মারা গিয়েছে। কিন্তু ফেরাউনের কিছু বংশধর বাংলাদেশ এখনো আছে। তারা রমজান আসলে সকল ধরণের পণ্যসামগ্রীর দাম বাড়িয়ে দেয়। আল্লাহ এদের হেদায়েত দান করুন। আমরা কেজি দরে তরমুজ কিনব না, আমি প্রতিজ্ঞা করেছি। আপনি?


Leave a Reply

Your email address will not be published.