শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে এক ধাপ পেছালো বাংলাদেশ

শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে এক ধাপ পেছালো বাংলাদেশ

জাতীয়: শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে বাংলাদেশের অবনতি হয়েছে। সম্প্রতি প্রকাশিত হেনলি পাসপোর্ট সূচকের দ্বিতীয় সংস্করণের তথ্য অনুযায়ী এক ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার বিশ্বের ১৯৯টি দেশের পাসপোর্ট সূচক প্রকাশ করেছে গ্লোবাল সিটিজেনশিপ ও রেসিডেন্সি পরামর্শক লন্ডনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স।

সর্বশেষ এই তালিকা অনুসারে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৪তম। একই অবস্থানে রয়েছে কসোভো ও লিবিয়া। প্রতিষ্ঠানটি প্রতি বছরই তিন মাস অন্তর এই সূচক প্রকাশ করে। তিন মাসের ব্যবধানে এই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান এক ধাপ অবনতি ঘটেছে।

এর আগে ২০২১ সালের অক্টোবরে বৈশ্বিক পাসপোর্ট সূচকে ১০৮তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ।তবে চলতি বছরের জানুয়ারিতে কসোভো এবং লিবিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে ৫ ধাপ এগিয়ে ১০৩তম অবস্থানে আসে বাংলাদেশ। ২০২০ সালে বাংলাদেশ ছিল ৯৮তম অবস্থানে।

হ্যানলির প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ভারতের অবস্থান ৮৪তম। ভারতের নাগরিকরা ৬০ দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করতে পারে। পাকিস্তান ১০৯তম, ১০৬তম স্থানে রয়েছে নেপাল, ৯১তম স্থানে আছে ভূটান।

দেশটির নাগরিকরা ৫৩টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করতে পারেন। ১০৪তম অবস্থানে থাকা বাংলাদেশের পাসপোর্ট দিয়ে ৪০টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করা যায়।শীর্ষে রয়েছে যৌথভাবে জাপান ও সিঙ্গাপুর।

এদেশ দুটির নাগরিকরা বিশ্বের ১৯২টি দেশে ভিসা ছাড়া ভ্রমণ করতে পারেন। জার্মানি এবং দক্ষিণ কোরিয়া রয়েছে দ্বিতীয় অবস্থানে।সর্বশেষ স্থানে রয়েছে আফগানিস্তান। দেশটি মাত্র ২৬ দেশে অন-অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করতে পারে।

ভিসা ছাড়া কোন পাসপোর্ট দিয়ে কতটি দেশে ভ্রমণ করা যায় তার ওপর ভিত্তি করে হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স এই সূচক তৈরি করে। মূলত ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের কাছ থেকে সংগৃহীত আন্তর্জাতিক যাত্রীদের ভ্রমণ তথ্য বিশ্লেষণ করে তৈরি করা হয় এই সূচক।


Leave a Reply

Your email address will not be published.