যুক্তরাষ্ট্রকে যে বার্তা দিলেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রকে যে বার্তা দিলেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক: যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের সঙ্গে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্কের ওপরে জোর দিয়েছেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ। তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের পর

একটি বিবৃতি দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এর প্রতিক্রিয়ায় পাক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বলা হয়, নতুন সরকার যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গঠনমূলক ও ইতিবাচকভাবে যুক্ত হতে চায়।

যাতে করে এ অঞ্চলে শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়ন নিশ্চিতে দুই দেশের সাধারণ উদ্দেশ্য সফল হয়। এ খবর দিয়েছে ডন। এর আগে হোয়াইট হাউসের তরফ থেকে বলা হয়,

একটি গণতান্ত্রিক ও সমৃদ্ধ পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। শেহবাজ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মাথায় হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

তিনি পাকিস্তানের নতুন সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যায়ে যুক্ত হওয়ার কথাও জানান। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার সরকারের উৎখাতের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ি করেছিলেন।

তার দাবি ছিল, যে অনাস্থা ভোটে তাকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে তা যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ধনেই চলছে। যদিও যুক্তরাষ্ট্র এমন অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে। কিন্তু এই ঘটনার প্রেক্ষিতে দুই দেশের মধ্যে একটি অসস্থিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। এটি পাকিস্তানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ককে তলানিতে নিয়ে গিয়েছিল। তবে নতুন সরকারের অধীনে এই সম্পর্ক পুনরুদ্ধারের আশা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সৃষ্টি হওয়া দেয়াল ভাঙ্গাকে

প্রাধান্য দিয়ে নতুন সরকারের পররাষ্ট্রনীতি সাজানো হবে। শেহবাজ শরীফ জাতীয় পরিষদে দেয়া ভাষণে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কে দ্বিধা তৈরি হয়েছে। কিন্তু এর মানে এই নয় যে দুই দেশের ঐতিহাসিক সম্পর্ক শেষ হয়ে গেছে। তার কার্যালয় থেকেও বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে থাকা ‘গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক’ পারস্পরিক স্বার্থ ও লাভের ভিত্তিতে এগিয়ে যাবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.