নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেল চালাতে নতুন পন্থা!


সংবাদ: নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেলের বিষয়ে কঠোর সরকার। নিবন্ধন ছাড়া মোটরসাইকেল নিয়ে যাতে কেউ বাইরে

বের হতে না আইনগত ভাবে সেই ব্যবস্থাই গ্রহণ করা হয়েছে। তবে এত কঠোর আইন ও ব্যবস্থার পড়েও ফুলবাড়ী

উপজেলায় নিবন্ধনহীন মোটর সাইকেলসহ বিভিন্ন অবৈধ যানবাহন চলাচল ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছেই। সাধারণত এইসব নিবন্ধনহীন

মোটরসাইকেল চালাতে একশ্রেণির মানুষ নতুন পন্থা বেছে নিয়েছেন। তারা অন্যজনের নিবন্ধনের জন্য টাকা জমা দেওয়ার রসিদ ফটোকপি

করে নিজের রেজিস্ট্রেশনবিহীন মোটরসাইকেলে ব্যবহার করছেন। এতে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে এসব মোটরসাইকেল অবাধে চলাচল করছে।

জানা গেছে, মোটরসাইকেলের বৈধ কাগজপত্র যাচাই অভিযান চালাচ্ছে থানা পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশ। এতে প্রতিদিনই নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেল জব্দ করা

হচ্ছে এবং জরিমানা আদায় ও মামলা রুজু করা হচ্ছে। তবে ঐসব নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেল মালিকরা আবারও সড়কে বের হতে শুরু করেছে। তবে এবার

তারা নতুন পন্থা বেছে নিয়েছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েক জন মোটরসাইকেল চালক বলেন, নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য যারা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কাছে আবেদনের টাকা জমা দিয়েছেন, তাদের কাছ থেকে নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেলের মালিকেরা রসিদ চেয়ে নেন। পরে ঐ রসিদ ফটোকপি করে লেমিনেটিং করে তা নিজের মোটরসাইকেলের পেছনে ঝুলিয়ে দিচ্ছেন। এতে করে পুলিশ মনে করছে, ঐ মোটরসাইকেলের জন্য নিবন্ধন ফি জমা দেওয়া হয়েছে। এই বিষয়ে থানার ওসি মো. আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, এক জনের রসিদের ফটোকপি অন্যজন মোটরসাইকেলে ঝুলিয়ে চলাচল করছে এমন অভিযোগের কথা জানা ছিল না। কেউ যদি এ কাজ করে তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.