উনি এতো ভালো বক্তৃতা দেন যে আমরা পার্লামেন্টেও মুগ্ধ হয়ে শুনি!


রাজনীতি: পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বলছেন, ‌শামীম ওসমানের বক্তব্য আমরা পার্লামেন্টেও মুগ্ধ হয়ে শুনি। উনি ওসমান পরিবার থেকে বার বার সংসদ সদস্য (এমপি) নির্বাচিত হয়েছেন।

এ ভবনটি সমবায় ব্যাংকের। তবে মেহেদী মার্টকে এ বিষয়টি নিয়ে কোনো দুশ্চিন্তা করার দরকার নেই। কারণ আমরা জানি তারা এখানে কোটি কোটি টাকা ইনভেস্ট করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) বিকেলে শহরের চাষাঢ়া এলাকায় মেহেদী মার্টের নতুন শাখার উদ্বোধন করা হয়। এ সময় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করছেন রঙধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক। প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, আমাদের বাংলাদেশের সর্বকালের শ্রেষ্ঠ সন্তান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কারণে আমরা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি।

সে কারণেই আজ আমরা আমাদের আত্মপরিচয় তুলে ধরতে পেরেছি। নারায়ণগঞ্জ ঐতিহাসিক জায়গা। তবে, সে অনুযায়ী উন্নয়ন হয়নি। আমরা চাই এখানে বড় বড় শপিংমল হোক, মানুষের কর্মক্ষেত্র তৈরি হোক।

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আমি রাজনীতি বলতে বুঝি যা বলব সোজা বলব এবং সাংবাদিকতা হিসেবে বুঝি যা লিখব সোজা সত্য লিখব। আমাদের মন্ত্রী অত্যন্ত জ্ঞানী মানুষ। তিনি দেখবেন, যেন ভবিষ্যতে কেউ সরকারের সঙ্গে ব্যবসায় করতে ভয় না পায়।

আমরা বিদেশি ইনভেস্টরদের ডাকি। দেশি ইনভেস্টররাই যদি না আসে তাহলে তারা কি আসবে। এমপি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই। তিনি দাদার মত একজন মানুষ আমাদের দিয়েছেন। ষড়যন্ত্র চলছে চলবে। তবে যতদিন স্বপন ভাইয়ের মত ত্যাগী নেতারা

আছেন তাদের সঙ্গে আমরাও ঐক্যবদ্ধ আছি। আমি আপনাদের কাছে একটা দোয়া, ভিক্ষা চাই। আপনারা সবাই শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। আমি এ ভিক্ষা চাই আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য। ফুটপাতে মসজিদে রাত কাটিয়ে আমাদের জীবন যৌবন চলে গেছে। আমি মনে করি, এদের জন্য সুন্দর ভবিষ্যত দরকার।

নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু বলেছেন, এ সম্পদ নারায়ণগঞ্জবাসীর একার নয়। যারা এখানে বাজার করতে আসবেন তাদের সবার। মন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ আপনি আমাদের আরো সুযোগ করে দেবেন। এসময় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান, নজরুল ইসলাম বাবু, মশিউর রহমান রাঙা, কাজিম উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.