লন্ডনে টয়লেটে শিশুর জন্ম, অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন জানতেনই না মা!

লন্ডনে টয়লেটে শিশুর জন্ম, অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন জানতেনই না মা!

অন্যান্য: লন্ডনে ২৩ বছর বয়সী এক নারী হাসপাতালের টয়লেটে এক পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন। তবে এর চেয়েও অবাক করা বিষয় হচ্ছে, ছেলের জন্মের আগ পর্যন্ত তিনি

জানতেনই না যে তিনি অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। গত ২৬ মার্চ লালিন মালিক নামে ওই নারী নর্থউইক পার্ক হাসপাতালের টয়লেটে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। ছেলের নাম তিনি রেখেছেন মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

স্কাই নিউজকে লালিন মালিক জানান, ২৬ মার্চ হঠাৎ করে পেটে তীব্র ব্যথা অনুভব করেন তিনি। প্রথমে ভেবেছিলেন কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগছেন তিনি। হাসপাতালে যাওয়ার পর টয়লেট ব্যবহার করে

ফ্ল্যাশ করার আগ মুহূর্তে টয়লেটের মধ্যে শিশুর হাত দেখতে পান। এরপর চিকিৎসাকর্মীরা এসে শিশুটিকে উদ্ধার করেন। উদ্ধার হওয়ার আগে প্রায় সাত মিনিট শিশুটি টয়লেটে পড়ে ছিল বলে ধারণা করছেন লালিন।

হাসপাতালের চিকিৎসক ইওয়া গ্রচলস্কি জানান, উদ্ধারের পর শিশুটিকে প্রায় মৃত দেখাচ্ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত শিশুটিকে বাঁচাতে সক্ষম হন তারা। তিনি বলেন, অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর না জেনেই শিশু জন্ম দেয়ার ঘটনা এর আগেও ঘটেছে।

তবে তা সাধারণত ঘটে হাসপাতালের বেডে। না জেনে এভাবে টয়লেটে শিশু জন্ম দেয়ার ঘটনা তিনি এই প্রথম দেখলেন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর আগে জানলে এর প্রতিটি মুহূর্তকে উপভোগ করতেন বলে জানান লালিন মালিক। তবে শিশুসন্তান জন্মের খবরে অবাক হলেও, যারপরনাই খুশি হয়েছেন তার স্বামীসহ পরিবারের সদস্যরা।

তবে তারা যে হাসপাতালে সাধারণত চিকিৎসা নিয়ে থাকেন, সেই এলম ট্রিস হাসপাতালের ওপর ক্ষু’ব্ধ লালিনের পরিবার। কেননা এক মাস আগেও সেখানে দুইবার প্রেগন্যান্সি টেস্ট করিয়েছিলেন লালিন, যেখানে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এ ব্যাপারে দুঃখ প্রকাশ করে এলম ট্রিস জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত করবে তারা।


Leave a Reply

Your email address will not be published.