কাবিনের টাকার জন্য স্বামীকে ফিল্মি স্টাইলে অপহরণ করলেন স্ত্রী


অপরাধ: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থানার বাসিন্দা গাড়ি চালক পারভেজ ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন নোয়াখালীর কবিরহাট থানার পান্না আক্তারকে।

বিয়েতে দেনমোহর ধরা হয় ১০ লাখ টাকা। আর্থিকভাবে অসচ্ছল পারভেজের পরিবার প্রথমে এই বিয়ে মেনে না নিলেও পরে মেনে নেয়।

পারভেজের স্ত্রী পান্না শ্বশুরবাড়িতে থাকার সময় তার শাশুড়ির সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঝগড়া শুরু হয়। পরবর্তীতে তাদের প্রথম সন্তান মারা গেলে উভয় পরিবারের মধ্যে বিরোধ চরমে ওঠে।

এক পর্যায়ে পান্না তার বাপের বাড়ি চলে যায়। এরপর স্বামীকে দেনমোহরের টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে স্ত্রী পান্না। আর্থিকভাবে অসচ্ছল পারভেজ তার স্ত্রীর চাহিদা পূরণ করতে না পারায় গত ১৮ এপ্রিল সকাল সাড়ে আটটার সময় ১০/১২ জন নিয়ে

মাইক্রোবাসে করে তার স্বামী পারভেজকে তার কর্মস্থল খুলশী থানাধীন নাসিরাবাদ প্রপার্টিজ আ/এ থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে বিষয়টি থানায় জানানো হলে পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে এই যুবককে উদ্ধার করে।

পাশাপাশি অপহরণের ঘটনায় জড়িত স্ত্রী পান্না আকতার ও তার ভাইকে আটক করা হয়। শুক্রবার (২২ এপ্রিল) নোয়াখালীর কবিরহাট এলাকার স্ত্রীর বাড়ি থেকে অপহৃত স্বামীকে উদ্ধার করে চট্টগ্রামের খুলশী থানার পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে খুলশী থানার ওসি সন্তোষ চাকমা জানান, আর্থিকভাবে অসচ্ছল পারভেজ স্ত্রীর চাহিদা পূরণ করতে না পারায় গত ১৮ই এপ্রিল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তার পরিবারের ১০-১২ জন লোক নিয়ে মাইক্রোবাসে করে তাকে তার কর্মস্থল খুলশী থানাধীন নাসিরাবাদ প্রপার্টিজ থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

এই ঘটনায় পারভেজের মায়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে খুলশী থানার এসআই সুমন বড়ুয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোর ৬টায় ভিকটিম পারভেজকে তার স্ত্রী পান্না আক্তারের বাড়ি থেকে আটক অবস্থায় থেকে উদ্ধার করেন। এই ঘটনায় জড়িত পান্না আক্তার ও তার ভাই জাহেদুল ইসলাম জাবেদকেও গ্রেপ্তার করা হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published.