ইমরান খানের বিরুদ্ধে বি’স্ফোরক অভিযোগ মরিয়ম নওয়াজের

ইমরান খানের বিরুদ্ধে বি’স্ফোরক অভিযোগ মরিয়ম নওয়াজের

অনাস্থা ভোটে হেরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রিত্ব ছাড়তে হয়েছে ইমরান খানকে। কিন্তু ক্ষমতা ছাড়লেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না তার।

এবার ইমরান খানের বিরুদ্ধে বি’স্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের মেয়ে ও মুসলিম লিগ-নওয়াজের ভাইস প্রেসিডেন্ট মরিয়ম নওয়াজ।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ট্রিবিউন এক্সপ্রেস রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। ট্রিবিউন এক্সপ্রেস জানায়, মরিয়ম নওয়াজ অভিযোগ করেন, ইমরান খান আরিফ নকভির বিরুদ্ধে

আসন্ন রায় ঘোষণা থেকে জনসাধারণের নজর সরানোর জন্য ‘লেটারগেট’ নাটক মঞ্চস্থ করেছেন। মরিয়ম নওয়াজের দাবি, ওই মামলায় ইমরানও জড়িত। নিজের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট

থেকে শনিবার মরিয়ম নওয়াজ এক টুইট বার্তায় জানায়, পাকিস্তানি ব্যবসায়ী এবং আবরাজ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা আরিফ নকভির কাছ থেকে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান লাখ লাখ ডলার টাকা ঘুস নিয়েছেন।

আরিফ নকভি বর্তমানে কারাগারে আছে। শীগগিরই তার মামলায় রায় ঘোষিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন মরিয়ম নওয়াজ। এদিকে, ইমরান খান ও তার স্ত্রী বুশরা বিবির বিরুদ্ধে বিভিন্ন রাষ্ট্র থেকে পাওয়া ১৪২ মিলিয়ন রুপির মূল্যবান উপহার সামগ্রী নিজেদের কাছেই রাখার অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এসবের জন্য এসবের জন্য মাত্র ৩৮ মিলিয়ন রুপি দাম দিয়েছেন। পাকিস্তানের অফিশিয়াল নথিতে দেখা গেছে, বিভিন্ন দেশ থেকে বুশরা বিবি ৮০০,২০০ রুপি ‍মূল্যের মূল্যবান সামগ্রী নিয়েছেন। অথচ একটা পয়সাও তার পেছনে খরচ করেননি। ২০১৮ সালের আগস্ট থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের পাওয়া উপহারের তালিকা তার শাসনামলে তোশাখানার কাছে গোপন রাখা হয়েছিল ছিল। কর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে তথ্য গোপন করার জন্যই তা গোপন রাখা হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.