স্ত্রীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফাঁসলেন স্বামী

স্ত্রীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফাঁসলেন স্বামী

নিউজ ডেষ্ক- নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে ইয়াবা দিয়ে ফাসাতে গিয়ে ওয়ালিদ নামে এক ব্যক্তি নিজেই ডিবির হাতে ফেসে গেছেন। এসময় ওয়ালিদ দৌড়ে পালিয়ে গেলেও তার এক সহযোগীকে আটক করেছে ডিবি।

২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি নাইনতারপাড়া এলাকার বাছির উদ্দিনের ভাড়াটিয়া বাসায় এঘটনা ঘটে। এবিষয়ে বুধবার সকালে গৃহবধূ সাবিনার বড় বোন রিয়া বেগম

পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। একইদিন নারায়ণগঞ্জ জেলা ডিবি পুলিশের এসআই মোহাম্মদ ইফতেখারুল ইসলাম বাদী হয়ে ওয়ালিদ ও আল আমিনের বিরুদ্ধে মাদক আইনে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায়

একটি মামলা দায়ের করেন। তাদের কাছ থেকে ৯০ পিচ ইয়াবা জব্দ দেখায় ডিবি। রিয়া বেগম অভিযোগে উল্লেখ করেন, ফতুল্লার মাসদাইর এলাকার মৃত. রফিক মিয়ার ছেলে ওয়ালিদ (৩২) রিয়া বেগমের ছোট বোন সাবিনাকে (২৪) বিয়ে করেন।

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য সাবিনাকে গলায় ছুরিকাঘাত করে হত্যার চেষ্টা চালায় ওয়ালিদ। পুলিশ গিয়ে সাবিনাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। এরপর থেকে বড় বোন রিয়া বেগমের বাসায় থাকেন সাবিনা।

এঘটনায় দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের জন্য ১৫ ফেব্রুয়ারী সাবিনার জালকুড়ির ভাড়াবাসায় গিয়ে ব্যাপক তান্ডব চালায় ওয়ালিদ এবং তাদের হুমকি দিয়ে বলেন মামলা না উঠালে তোদের পরিবারের সবাইকে হত্যা করবো নয়তো মাদক দিয়ে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিবো। এ তান্ডবের ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেন সাবিনা। এঘটনার দুই মাসের মাথায় ডিবি পুলিশকে ভূল তথ্য দিয়ে গৃহবধূ সাবিনা ও তার পরিবারকে মাদক ব্যবসায়ী আখ্যা দেয়ার চেষ্টা চালায় ওয়ালিদ।

গৃহবধূ সাবিনা বলেন, ওয়ালিদ ব্যাপরোয়া হয়ে উঠেছে। সে বাহিরে থাকলে আমি পরিবারের লোকজন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগী। আমার পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশ সুপারের কাছে আবেদন করেছি। নারায়ণগঞ্জ জেলা ডিবি পুলিশের এসআই মোহাম্মদ ইফতেখারুল ইসলাম জানান, আমাদের মাদক ব্যবসায়ীদের তথ্য দিয়ে ওয়ালিদ ও আল আমিন নামে দুজন জালকুড়ি নিয়ে গেছে। যখন বুঝতে পারি তারা তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য আমাদের ব্যবহার করছে। তখন তাদের মধ্যে একজনকে ইয়াবাসহ আটক করেছি আরেকজন পালিয়ে গেছে। এবিষয়ে মামলা হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.