আইসক্রিমেও মন গলেনি স্ত্রীর ৯৯৯-এ কল করে ধরিয়ে দিলেন স্বামীকে!


স্বামী আইসক্রিম নিয়ে গেলেন শ্বশুরবাড়ি বউ আনতে, আর বউ ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দিলেন তাকে।

সোহেল উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের চরটিটিয়া গ্রামের মো. সফিজল খানের ছেলে। মঙ্গলবার রাতে পৌর এলাকার ৮নং ওয়ার্ডস্থ শ্বশুরবাড়ি থেকে স্বামী রডমিস্ত্রি সোহেলকে আটক করে ভোলার লালমোহন থানা পুলিশ।

বুধবার দুপুর পর্যন্ত থানা হাজতে আটক থাকার পর দুপুরে দু’পক্ষের সমঝোতায় সোহেলকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। সোহেল জানান, এ বছরের জানুয়ারি মাসে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর সে ঢাকায় চলে যায়।

সেখানে রড মিস্ত্রির ঠিকাদারি করেন। বাড়িতে স্ত্রী অন্য একজনের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলার কারণে রাগ করলে সে বাবার বাড়ি চলে যায়। মঙ্গলবার ঢাকা থেকে বাড়ি আসেন সোহেল। বিকালে বউকে বাড়ি নিতে শ্বশুরবাড়ি যান আইসক্রিম নিয়ে।

সন্ধ্যা বেলায় ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে থানা পুলিশে তুলে দেয়া হয় তাকে। সোহেলের স্ত্রী শাবানা জানান, বিয়ের পর তার স্বামী অন্য একজনের সঙ্গে সম্পর্ক আছে বলে মিথ্যা অভিযোগ আনেন তার বিরুদ্ধে। এসব নিয়ে তাকে মারধর করা হয়

যার কারণে ৯৯৯-এ ফোন দিয়েছি। এরপর পুলিশ এসে তাকে আটক করে ধরে নিয়ে যায়। লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ জানান, জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ থেকে থানায় জানানো হয় লালমোহন পৌর শহরের ৮নং ওয়ার্ডের একটি বাড়িতে স্ত্রীকে মারধর করছে স্বামী। পরে পুলিশ গিয়ে সোহেল নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করে। কোনো লিখিত অভিযোগ বা মামলা করা হয়নি। যার কারণে সোহেলকে সমঝোতায় পরিবারের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.