নিউমার্কেট সংঘর্ষ নিয়ে মুখ খুলল ডিবি পুলিশ

নিউমার্কেট সংঘর্ষ নিয়ে মুখ খুলল ডিবি পুলিশ

রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ী-কর্মচারীদের সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে গুজব ছড়িয়ে একটি বিশেষ মহল সারা দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চেয়েছিল বলে জানিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ডিবি জানায়, একটি বিশেষ মহল ঘটনার শুরু থেকেই নানা উসকানি ও গুজব ছড়াতে শুরু করে। গুজব ছড়িয়ে শিক্ষার্থী ও পুলিশকে একে অপরের

বিপক্ষে দাঁড় করিয়ে সারা দেশের শিক্ষার্থীদের উত্তেজিত করার চেষ্টা করেছিল বিশেষ মহলটি। তাদের উদ্দেশ্য ছিল শিক্ষার্থীদের উসকানি দিয়ে উত্তেজিত করে ঢাকা শহরকে কলাপস (অচল) করে দেওয়া।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবিপ্রধান অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ১৮ ও ১৯ এপ্রিল নিউমার্কেট এলাকায় শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের ঘটনায় জানমালের ক্ষতি হয়।

নিউমার্কেটের ওয়েলকাম ফাস্টফুডের বাপ্পী ও ক্যাপিটাল ফাস্টফুডের কাউসারের ঝগড়া থেকে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। বাপ্পী ঢাকা কলেজ থেকে তার তিন বন্ধুকে নিয়ে এসে সংঘর্ষে জড়িত করেন। পরে এক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে এমন গুজব ছড়িয়ে হোস্টেলের শিক্ষার্থীদের উত্তেজিত করা হয়। এরপর ব্যবসায়ী ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ডিবি প্রধান বলেন, এই সংঘর্ষের ঘটনায়ও অনেক গুজব ছড়িয়ে উসকানি দেওয়া হয়েছে। আমরা কিন্তু জানি ছাত্র ও শ্রমিকদের ক্ষেত্রে অ্যাকশনে যেতে হলে আমাদের অনেক ফর্মালিটি মানতে হয়। এবারও উসকানি ও গুজব ছড়িয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হয়েছিল। পুলিশ, ছাত্র ও ব্যবসায়ীসমাজ- সবাই মিলে যদি পরিস্থিতি নিষ্ক্রিয় না করতো তাহলে গুজবের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি সৃষ্টি হতো। কারণ একটি পক্ষ পায়তারা করছিল সংঘর্ষের ঘটনাটিকে আরও বড় ও লম্বা করার।

তিনি আরও বলেন, আমরা সাইবার মনিটরিং দেখেছি, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব ও উসকানির কারণে অস্থিরতা সৃষ্টি হচ্ছিল। আমরা দেখেছি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছাত্র বনাম পুলিশ ও শ্রমিক বনাম পুলিশ পরিস্থিতি সৃষ্টি করে গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করা চেষ্টা হচ্ছিল সারা দেশে। আমরা দেখেছি, গুজবের কারণে ইডেন মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, সিটি কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একটি অংশ আন্দোলনে আসেন। গুজব ছড়িয়ে ঢাকা শহরকে কলাপস করার পায়তারা ছিল।

ডিবি প্রধান বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাজের অংশ হিসেবে আমাদেরও গুজব নিভৃত করতে হয়। আমরা বলবো, যেকোনো ঘটনা ঘটলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর ভরসা রাখতে হবে। বার বার গুজব সামনে চলে আসছে এ ধরনের ঘটনায়। গুজব ছড়িয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করার চেষ্টা করা হয়। আমাদের গুজব থেকে সাবধান থাকতে হবে।

গুজব কারা সৃষ্টি করেছে প্রশ্ন করা হলে ডিবি প্রধান বলেন, গুজব সৃষ্টিকারীদের শনাক্তকরণে আমরা কাজ করছি। গুজবের বিষয়টি কিন্তু প্রায়শই আসছে। একটি ঘটনা ঘটলে পরিস্থিতি আরও গরম করার জন্য একটি মহল এই গুজব ছড়ায়। গুজব ছড়ানোর কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আমাদের বেগ পেতে হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published.