বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহারে স্বস্তি প্রকাশ করে যা বললেন সেই টিটিইর

বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহারে স্বস্তি প্রকাশ করে যা বললেন সেই টিটিইর

সংবাদ: সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহারে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন রেলওয়ের ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) শফিকুল ইসলাম।

রোববার (৮ মে) দুপুরে তার বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করে তাকে স্বপদে বহাল রাখা হয়েছে। বিকেলে টিটিই শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন,

বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহারের জন্য আলহামদুল্লিাহ। তবে আমি এখনও কোনো চিঠি পাইনি। কাজে যোগদানের জন্য আবেদন করেছি। যেহেতু বিষয়টির এখনও তদন্ত চলছে,

সে জন্য হয়তো এখনও আনুষ্ঠানিক চিঠি পাইনি। এর আগে দুপুরে পাবনার পাকশীতে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তার (ডিসিও) কার্যালয়ে তদন্ত কমিটির জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন শফিকুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, গত ৪ মে দিবাগত রাতে খুলনা থেকে ঢাকাগামী আন্তনগর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে এ জরিমানার ঘটনা ঘটে। পরে বৃহস্পতিবার (৫ মে) বিকেলে ঈশ্বরদীর পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে

বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিনের নির্দেশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত হওয়া টিটিই মো. শফিকুল ইসলাম রেলওয়ে জংশন ঈশ্বরদীর টিটিই হেডকোয়ার্টারের সঙ্গে যুক্ত।

ঘটনার পর সমালোচনার মুখে পুরো বিষয়টি তদন্তে শনিবার (৭ মে) রেলের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করতে পাকশীতে আজ ওই তিন যাত্রী ও টিটিইর সঙ্গে কথা বলছেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

এদিকে রেলমন্ত্রীকে সাময়িক পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি), যাত্রী কল্যাণ সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন। টিআইবির পক্ষ থেকে রেলমন্ত্রীর ‘স্ত্রীর তিন আত্মীয়কে’ জরিমানার ঘটনায় সংশ্লিষ্ট টিকিট পরিদর্শককে (টিটিই) সাময়িক বরখাস্ত করাকে ন্যক্কারজনক দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.