প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নের জবাবে যা বললেন রাজনীতিক দলের প্রধানরা

প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নের জবাবে যা বললেন রাজনীতিক দলের প্রধানরা

রাজনীতি: ‘সরকার উৎখাত করতে চায়, আমাদের অপরাধটা কী? কোথায় ব্যর্থ হয়েছি?’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন প্রশ্নের জবাবে দেশের কয়েকজন রাজনীতিক বলেছেন,

কত অপরাধের কথা বলতে হবে। বরং ক্ষমতা থেকে তার সরকারকে চলে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। রবিবার ( ৮ মে) রাজধানীর পল্টনে গণ অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে

বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা ও মতবিনিময় সভায় কয়েকটি দলের প্রধানরা এসব মতামত দেন। গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘ভোটচুরি,

গুম, হত্যা আর কত অপরাধের কথা বলতে হবে? আপনারা সামনে বা পেছনের দরজা না, জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকেছেন। আমাদের সবার একত্রে রাস্তায় নেমে এই সরকারের পতনের দাবিতে আন্দোলন করতে হবে।’

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জিজ্ঞেস করেছেন— তাদের অপরাধ কি? বিদেশে বাঙালিদের লাশ পড়ে থাকে, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় কী করে? চলে যেতে বলছি কেন?

১৩ বছর ধরে বিনা ভোটে ক্ষমতায় আছেন। এবার মেহেরবানি করে নামেন। এই সরকারের অধীনে কেউ নির্বাচনে যাবে না। যারা এর অধীনে নির্বাচন করবে, তারা জাতীয় বেইমান।’ গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নুর বলেন, ‘দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা না থাকায় বিদেশের শ্রম বাজারে তার প্রভাব পড়ছে। বিভিন্ন বন্ধুপ্রতিম দেশগুলো বাণিজ্যিক সম্পর্কের বিষয়ে নতুন করে ভাবতে বাধ্য হচ্ছে। সরকারের দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতির ফলে দেশ একটি বড় সংঘাতময় পরিস্থিতির দিকে এগোচ্ছে। মনে রাখবেন, নগর পুড়লে দেবালয় বাদ যায় না। এই সরকারের ওপর মানুষের আর কোনও আস্থা নেই।’

ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, ‘এ সরকার দেশে এবং বিদেশে যারা বসবাস করে, তাদের সরকার নয়। তারা হলো লুটপাটের সরকার। শেখ হাসিনার সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে, বাংলাদেশের তত বেশি ক্ষতি হবে। তারা ব্যস্ত বিদেশে বেগমপাড়া তৈরি করে দেশের সম্পদ পাচারে। আসুন, সব গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক সংগঠন একসঙ্গে এক ও অভিন্ন কর্মসূচির দিয়ে মহাদুর্নীতিবাজ হাসিনা সরকারকে হটানোর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে জাতীয় সরকার প্রতিষ্ঠা করি।’


Leave a Reply

Your email address will not be published.