বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সাবেক এমপি ৬০ বছরে বিয়ের পিরিতে বসলেন

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সাবেক এমপি ৬০ বছরে বিয়ের পিরিতে বসলেন

৬০ বছর বয়সে বিয়ের পিরিতে বসলেন হবিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু।

রবিবার (১৫ মে) দুপুরে সাবেক এমপি মুনিম চৌধুরী বাবু অনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বুড়ো বয়সে বিয়ে নিয়ে তোলপাড় হচ্ছে। ফেসবুকে রসালো আলোচনা সমালোচনার ছবি ভাইরাল হয়েছে।

বিভিন্ন জন টিকটক করেও মজা করছেন। জানা যায়, হবিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও হবিগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু এক ছেলে এক কন্যা সন্তানের জনক।

প্রথম স্ত্রী ও দুই বিবাহিত সন্তান যুক্তরাজ্যে বসবাস করে আসছেন। নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি গ্রামের মৃত আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরীর বড় ছেলে এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু ২০১৪ সালে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

সংসদ সদস্য থাকাকালীন সময়ে পরিচয় হয় একই উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল মোকামপাড়া গ্রামের কনা মিয়ার মেয়ে তৎকালীন কলেজছাত্রী তানিয়া আক্তারের সঙ্গে। দীর্ঘ কয়েক বছরের পরিচয়ের পর পারিবারিকভাবে বিয়ের আয়োজন করা হয়।

রবিবার (১৫ মে) বিয়ের দিন নিজ গ্রাম কুর্শি থেকে সাবেক সংসদ সদস্য মুনিম চৌধুরী বাবু বিশাল গাড়ি বহর নিয়ে আউশকান্দির রহমান কমিউনিটি সেন্টারে কনে তানিয়া আক্তারকে আনতে যান। এতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, আত্মীয়-স্বজন বিয়েতে অংশগ্রহণ করেন। বিয়ের অনুষ্ঠানিকতা শেষে কনে নিয়ে বাড়ি ফেরেন মুনিম চৌধুরী বাবু।

এদিকে সাবেক এমপি মুনিম চৌধুরী বাবুর বিয়ের ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এ প্রসঙ্গে সাবেক সংসদ সদস্য মুনিম চৌধুরী বাবু বলেন, আমার প্রথম স্ত্রী, দুই সন্তান যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন, দেশে আসেন না। বাংলাদেশে আমি একাকিত্ব জীবন অতিবাহিত করছি এ জন্যই মূলত পারিবারিকভাবে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.