আব্বাসীর বিরুদ্ধে মামলা করলেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক

আব্বাসীর বিরুদ্ধে মামলা করলেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক

নিউজ ডেষ্ক- শ্বেত পত্র নিয়ে উচিৎ জবাব দেয়ায় ইসলামী বক্তা ড. এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে কথিত মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

মঙ্গলবার (১৭ মে) রাত আটটার দিকে শাহবাগ থানায় বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন মামলাটি করেন। জানা যায়, গত ১৫ মে ফেস দ্যা পিপল নামে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনপ্রিয় পেজে আলেমদের শ্বেতপত্র নিয়ে বিতর্ক হয়। সেখানে গণ কমিশনের সদস্য সচিব ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ও ব্যারিস্টার নিঝুম মজুমদারের কথার স্পষ্ট জবাব দেয় ড. মাওলানা এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী।

যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। মামলার এজহারে বলা হয়েছে, গত ১৪ মে রাত ৯টার দিকে ইউটিউবে ফেস দ্য পিপল (Face The peple) নামের একটি টকশো অনুষ্ঠানে অংশ নেন ডা. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী।

টকশোর আলোচনার বিষয় ছিল ‘১১৬ জন আলেম নিয়ে অভিযোগ বিশ্লেষণ’। এখানে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির শ্রেষ্ঠ বীর সন্তানদের জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করে ড. এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী বলেন, জঙ্গিবাদ কি খারাপ জিনিস!

কে বলেছে, জঙ্গিবাদ খারাপ জিনিস! জঙ্গি বিমান! এটা কি সন্ত্রাসী বিমান! জঙ্গি শব্দটা এসেছে ‘জাং’ থেকে, ফার্সিতে জাং বলে যুদ্ধকে- ফাইট। অতএব, ফ্রিডম ফাইটাররাও এক অর্থে জঙ্গি। চিহ্নিত ইসলাম বিদ্ধেষী, দূর্নীতিগ্রস্ত, চাঁদাবাজ ও বিতর্কিত ব্যক্তিদের কর্তৃক জঙ্গিবাদে অর্থায়ন ও দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের কাল্পনিক অভিযোগ এনে ১১৬ বরেণ্য আলেমের তালিকা দুর্নীতি দমন কমিশনে জমা দেয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় আব্বাসী।

এসময় তিনি কথিত মুক্তিযুদ্ধমঞ্চ নিয়েও কঠর সমালোচনা করেন। তার প্রেক্ষিতে এই মামলা করা হয়েছে বলে মনে করছেন সাধারন মহল। তারা বলছেন, আলেমদের মুখ বন্ধ করতে কথিত গণ কমিশন তৈরি করে শ্বেত পত্র তৈরি করে যখন কার্যকর করতে পারছেনা তখন আলেমদের নামে আবারও মামলা দিয়ে দমন করতে চাচ্ছে। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুড়ে চলছে তুমুল সমালোচনা। এই মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছেন তারা। তার বলছেন, আলেমদের এসব হয়রানি বন্ধ না হলে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.