প্রধানমন্ত্রীকে আপা ডাকা যায়, স্যার ছাড়া ডাকা যায় না সরকারি কর্মকর্তাদের, এমন সংস্কৃতি বিদায় করতে হবে

প্রধানমন্ত্রীকে আপা ডাকা যায়, স্যার ছাড়া ডাকা যায় না সরকারি কর্মকর্তাদের, এমন সংস্কৃতি বিদায় করতে হবে

আলোচিত- বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও সুনামের সাথে রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

আ.লীগের শীর্ষনেতা থেকে শুরু করে স্থানীয় নেতা সকলের কাছে প্রিয় একজন মানুষ শেখ হাসিনা। অনেকেই তাকে ‘আপা’ বলে সম্বোধন করেন যা প্রধানমন্ত্রী খুবই আনন্দের সাথে উপভোগ করেন। মূলত একজন প্রধানমন্ত্রীর মন মানসিকতা এমনই হওয়া উচিত।

তবে সবাই প্রধানমন্ত্রীর মত নয়। প্রজাতন্ত্রের অনেক কর্মকর্তা (জনগণের সেবক) আছেন যারা স্যার বলে সম্বোধন না করলে ঘুরেও তাকাতে চান না? তবে এমন মন-মানসিকতা সবার মধ্যে নেই।

তবে কিছু কিছু ব্যক্তিত্ব আছে যাদের এমনটা করতে দেখা যায়। যারা স্যার বা ম্যাডাম বলে সম্বোধন না করলে কোন প্রকার সেবাদান করেন না। বিশেষ করে বিভিন্ন সরকারি অফিসে এমন চিত্র বেশি দেখা যায়।

যা অনেক সময় সংবাদমাধ্যমগুলোতে উঠে এসেছে। কিন্তু কেন তারা এমন করেন? এর বিরুদ্ধে কি কোনো প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে অতীতে? আপনি একবার ভেবে দেখেছেন, এই প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তাদের (জনগণের সেবক) বেতন হয় জনগণের টাকায়।

তবু কেন তাদের সাথে দুর্ব্যবহার? এর বিরুদ্ধে কি প্রতিবাদ করার মতো কেউ নেই। যেখানে একজন প্রধানমন্ত্রীকে আপা বলে সম্বোধন করা যায়, সেখানে কেন প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তাদের (জনগণের সেবক) স্যার বলে সম্মোধন না করলে কোন প্রকার সেবা পাওয়া যাবে না? এই অকেজো সংস্কৃতি দেশ থেকে বিদায় করতে সোচ্চার হতে হবে আমাদের। যেকোনো মূল্যে দূর করতে হবে এমন সংস্কৃতি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.