উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাঁরে, হামলা করল ছাত্রলীগ মামলা হলো বিএনপির!

উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাঁরে, হামলা করল ছাত্রলীগ মামলা হলো বিএনপির!

রাজনীতি: খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির নেতারা অভিযোগ করে বলেছেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশের সহযোগিতায় হামলা

চালিয়ে বিএনপির সমাবেশ পণ্ড করে দেয়। কিন্তু পরে মামলা করা হয়েছে উল্টো আমাদের নেতাকর্মীদের নামে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ

সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন বিএনপির নেতারা। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিএনপির সমাবেশ মঞ্চ ও ৫ শতাধিক চেয়ার ভাঙচুর করে। এ ছাড়া পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ,

শটগানের গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। ছাত্রলীগ ও পুলিশের হামলায় বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়। অথচ পুলিশ উল্টো বিএনপির ৯২ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় ৮০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক শফিকুল আলম মনা অভিযোগ করে বলেন, হামলার সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে লাঠি এবং দেশীয় অস্ত্র ছিল। অথচ পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। পুলিশ বিএনপি অফিসের মধ্যেও ভাঙচুর চালিয়েছে, যা এর আগে খুলনায় কখনো হয়নি। এ হামলা ও মামলার বিরুদ্ধে কর্মসূচি দেবে খুলনা বিএনপি।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগ হামলা চালিয়ে তাদের অপকর্ম ঢাকার জন্য মিথ্যাচার করে বলছে যে, বিএনপি তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে খুলনা সদর থানার এস আই বিশ্বজিৎ কুমার বসু বাদী হয়ে মামলা করেছে। মামলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা রকিবুল ইসলাম বকুল,

মহানগর বিএনপির আহবায়ক শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমির এজাজ খানসহ ৯২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এদিকে সংঘর্ষ চলাকালে আটক মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিনসহ ৩৭ জনকে শুক্রবার দুপুরে আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.