ঢাকায় আনা অগ্নিদগ্ধদের সর্ব শেষ অবস্থা সম্পর্কে যা জানা গেল

ঢাকায় আনা অগ্নিদগ্ধদের সর্ব শেষ অবস্থা সম্পর্কে যা জানা গেল

কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে বিপর্যস্ত চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড। ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি।

ইতিমধ্যে এই মর্মান্তিক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুরো দেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন ৪ শতাধিক।

ইতিমধ্যে ডিপোতে আগুন ও বিস্ফোরণে দগ্ধ ১৪ জনকে রোববার (৫ মে) ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে তাদের প্রত্যেকের অবস্থা বর্তমানে আশঙ্কাজনক।

গতকাল রোববার (৫ জুন) রাতে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক সামন্ত লাল সেন।

তিনি বলেন, যাদের এখানে (ঢাকায়) আনা হয়েছে, তাদের ২-১ জন ছাড়া সবারই শ্বাসনালি পুড়ে গেছে। তাদের কেউই শঙ্কামুক্ত নন। এর মধ্যে দুইজনের শতকরা ৫০-৮০ ভাগ শরীর পুড়ে গেছে।

এদের মাঝে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা ১৪ জনের মধ্যে ১২ জন সাধারণ মানুষ এবং বাকি দুজন দমকল কর্মী। তাদের মধ্যে গুরুতর দগ্ধ সাতজনকে সামরিক বাহিনীর হেলিকপ্টারে করে রোববার সন্ধ্যায় ঢাকায় আনা হয়। তারা হলেন— ফায়ার সার্ভিস কর্মী রবিন মিয়া (২২), গাউছুল আজম (২২), মাসুম মিয়া (৩২) ফারুক হোসেন (১৬), মহিবুল্লাহ (৩০) ফরমানুল ইসলাম (৩২) ও রুবেল মিয়া (৩৪)। ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, এই সাতজনের মধ্যে দুইজনের ৫০ ও ৮০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাদেরকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। বাকিদের ১৫ থেকে ২০ শতাংশ পুড়েছে।

এর আগে গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে বিএম কন্টেইনার ডিপোর লোডিং পয়েন্টের ভেতরে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রথমে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। রাত পৌনে ১১টার দিকে এক কন্টেইনার থেকে অন্য কন্টেইনারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। একটি কন্টেইনারে রাসায়নিক থাকায় বিকট শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ, স্থানীয় শ্রমিকসহ অনেকে হতাহত হন। পরবর্তী সময়ে ইউনিট আরও বাড়ানো হয়। বর্তমানে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিটের ১৮৩ কর্মী আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন। এছাড়া নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও কুমিল্লাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকেও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.