দেশের অনেক মানুষ এখন স্বচ্ছল, হাঁচি-কাশি হলেই বিদেশ চলে যায়

দেশের অনেক মানুষ এখন স্বচ্ছল, হাঁচি-কাশি হলেই বিদেশ চলে যায়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের দেশের অনেক মানুষ এখন আর্থিকভাবে সচ্ছল। তাদের টাকা-পয়সা হয়ে গেছে। একটু হাঁচি-কাশি হলেও তারা বিদেশ চলে যায়। তা একদিকে ভালো।

এতেকরে আমাদের এখানে রোগীর চাপটা একটু কম পড়ে। আজ সোমবার (৬ জুন) রাজধানীর মহাখালীতে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স অ্যান্ড সার্জনসের (বিসিপিএস) সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনার সময় বাংলাদেশের হাসপাতালে তাদের (ধনীদের) চিকিৎসা নিতে হয়েছে বা ভ্যাকসিন নিতে হয়েছে। করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা নিতে হয়েছে। তখন অনেকেই এই মন্তব্য করেছেন যে বাংলাদেশেও যে এত সুন্দর

হাসপাতাল আছে এটা তো আমরা কখনও দেখিনি, জানতামই না। করোনা আমাদের একটা শিক্ষা দিয়েছে… আমাদের বিত্তশালীদের অন্ততপক্ষে আমাদের দেশেও যে আন্তর্জাতিক মানের সেবা দিতে পারে.. আমাদের ডাক্তার, নার্স। আমাদের ডাক্তাররাও যে এত দক্ষতা রাখে অন্তত এই শিক্ষাটা তারা পেয়েছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা বিনা পয়সায় ভ্যাকসিন দিয়েছি। ভ্যাকসিন আমরা নিজের টাকায় কিনেছি। টেস্ট কিট আমরা নিজের টাকায় কিনেছি। আমরা বিনা পয়সায় সবাইকে দিয়েছি। আমাদের এই সমস্ত বিত্তশালীরা হঠাৎ যারা টাকা-পয়সা বানিয়ে বেশ ফুলেফেঁপে উঠেছেন,তারা বিদেশে যেতে পারেননি। কারণ তখন তো সব দরজা বন্ধ।

শেখ হাসিনা বলেন, ক্ষমতাটা আমার কাছে একটা সুযোগ বাংলাদেশের জনগণের সেবা করার। এখানে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ভোগবিলাসে গা ভাসিয়ে দেওয়া নয়, বাংলাদেশের জনগণের মৌলিক চাহিদা পূরণ করার এবং তাদের সেবার একটা সুযোগ আমি মনে করি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.