অবশেষে জানা গেল, যে কারণে টেকেনি জয়া-ফয়সালের সংসার (ভিডিওসহ)

অবশেষে জানা গেল, যে কারণে টেকেনি জয়া-ফয়সালের সংসার (ভিডিওসহ)

নেটদুনিয়ায় নতুন চমক নিয়ে সর্বদা শিরোনামে থাকেন অভিনেতা- অভিনেত্রীরা। গেল কয়েক বছরে সবাইকে চমকে দিয়ে বাংলাদেশ ও কলকাতা (দুই বাংলাতেই) এখন রাজত্ব করছেন

বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। ভারতের এই বছরের সেরা অভিনেত্রীদের তালিকায় স্থান পেয়েছে জয়া আহসানের নাম। অভিনয়, লুকস বা ফিটনেস সব খানে সব বয়সীদের সাথেই পঞ্চাশ

ছুঁই ছুঁই এই অভিনেত্রীর অবাধ বিচরণ। তবে হঠাৎ করেই জয়ার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কৌতূহলী হয়ে উঠেছেন জয়াভক্তরা। কলকাতা ও বাংলাদেশ- তার দুই বাংলার অনুরাগীরাই জানতে চান,

কী কারণে টেকেনি জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়ার সংসার? মূলত কি কারণে তাদের ১৩ বছরের দাম্পত্য জীবন টিকেনি, তা আজও রহস্যে ঘেরা। আর নেটদুনিয়ায় এ নিয়ে ব্যাপক লেখালেখিও হয়েছে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও শিরোনামে এসেছে জয়া ও তার সাবেক স্বামী ফয়সালের বিচ্ছেদের ঘটনা। কি কারণে তাদের সংসার ভেঙ্গে গেছে, তা নিয়ে চলছে নানা শোড়গোল।

তবে এবার ঠিক কী কারণে ভেঙে গিয়েছিল সেই সংসার, এ নিয়ে দীর্ঘ এত বছর পর মুখ খুলেছেন জয়ার সাবেক স্বামী ফয়সাল। অবশেষে জানিয়েছেন তাদের বিচ্ছেদের কারণ। এসময় ফয়সাল বলেছেন, ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তারা।

জমিদার পরিবারের ছেলে ছিলেন ফয়সাল । জয়ার সঙ্গে ফয়সালের দেখা হয়েছিল ১৯৯৮ সালে। মিডিয়াতে একসাথে কাজ করতেন তারা। সেখান থেকেই ফোনে কথা বলতে বলতেই একে অপরের গভীর প্রেমে পড়েন। প্রেমের পরিণতি টানেন বিয়ের মাধ্যমে। এরপর দুজনে সংসার করেন ১৩ বছর।

বিয়ের পরে কাজের অগ্রগতিতে জনপ্রিয়তা বাড়ছিল জয়ার। সে তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে ছিলেন ফয়সাল। এই সাফল্যই হয়তো তাদের দাম্পত্যে ফাটল ধরিয়ে দিয়েছিল, ফলে তাদের মধ্যে প্রতিনিয়ত মনোমালিন্য বাড়তে থাকে।

এতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ক্রমশ দূরত্ব বাড়তেই থাকে। দুজনের সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে অনেক চেষ্টাও করেছিলেন ফয়সাল। কিন্তু সেই দুরত্ব আর কমাতে পারেনি, শেষমেষ রূপ নেয় বিবাহ বিচ্ছেদে। ২০১১ সালে পরিবারের সাথে আলোচনা করেই সম্পূর্ন রূপে আলাদা হয়ে যান তারা।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published.