দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন আওয়ামী লীগ নেতারা

দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন আওয়ামী লীগ নেতারা

রাজনীতি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকির’ প্রতিবাদে রাজধানীতে বিক্ষোভ-সমাবেশের কারণে রাজধানীতে তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

বুধবার ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।দুপুর দেড়টা দিকে পর থেকে তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জমায়েত হতে থাকে।

সেখান থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা কারওয়ানবাজারে হোটেল সোনারগাঁয়ের পাশে সমাবেশস্থলে যায়। সেখানে ট্রাকের উপরে স্থাপিত অস্থায়ী মঞ্চে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য দেন।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে সমবেত নেতাকর্মীরা পান্থপথ হয়ে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর পর্যন্ত মিছিল করে। মিছিল ও সমাবেশের কারণে আশেপাশের এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। হাতিরঝিল,

কারওয়ানবাজার, বাংলামোটর, শাহবাগ, কলাবাগান, ধানমণ্ডি ২৭, খামারবাড়ি, বিজয় সরণি এলাকায় দীর্ঘসময় যানবাহনকে অপেক্ষায় থাকতে হয়। বিকাল সাড়ে তিনটা থেকে ৫টা পর্যন্ত রাস্তায় মানুষকে বড় ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশের সমাপনী বক্তব্যে যানজট ও ভোগান্তির কারণে ঢাকাবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এমএম মান্নান কচি। ঢাকাবাসীর উদ্দেশে তারা বলেন, ‘রাজপথে জবাব দেওয়ার জন্য একটু নেমেছি। আপনাদের একটু সময় নষ্ট হয়েছে। যানজটে কষ্ট হয়েছে। এজন্য আমরা করজোড়ে ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশের শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে হুমকি দিলে, শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিলে কাউকে রেহাই দেওয়া হবে না। মির্জা ফখরুল সাহেব, ইটটি মারলে পাটকেলটি খেতে হবে। এটি মনে রাখতে হবে। কেউ যদি আঘাত করে তাহলে পাল্টা আঘাতের জন্য আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রস্তুত রয়েছি। সমাবেশে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আজকের এই বিক্ষোভ সমাবেশে লাখ লাখ লোকের উপস্থিতি প্রমাণ করে আওয়ামী লীগ সব ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক এমএম মান্নান কচি। উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজি, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.