নৌকার প্রচারণায় শিক্ষক- ইমামরা, প্রতিকার চাইলেন সাক্কু

নৌকার প্রচারণায় শিক্ষক- ইমামরা, প্রতিকার চাইলেন সাক্কু

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের নৌকার পক্ষে প্রচারণা চালানোর প্রতিকার চেয়ে রিটার্নিং

কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জমা দিয়েছেন। শনিবার (১১) জুন বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী বরাবর তিনি এ অভিযোগ জমা দেন।

অভিযোগে সাক্কু উল্লেখ করেন, কুমিল্লা-৬ সদর আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এলাকায় অবস্থান করছেন। তিনি সিটির এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং

মসজিদের ইমামদের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাতের পক্ষে প্রচারণা চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। এমপির নির্দেশে বিভিন্ন ওয়ার্ডে সেসব শিক্ষক এবং ইমামরা নৌকার পক্ষে কাজ করছেন।

যা সিটি করপোরেশন নির্বাচন আইনে সুস্পষ্ট আচরণবিধি লঙ্ঘন। এর প্রতিকার চেয়ে চাই। অভিযোগের বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন সাক্কুর মুখপাত্র কবির হোসেন মজুমদার।

রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে জানান, অভিযোগটি পেয়েছি, খোঁজ নিয়ে সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রসঙ্গত, আগামী ১৫ জুন কুসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে মেয়র পদপ্রার্থী আছেন পাঁচজন।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগের আরফানুল হক রিফাত, বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু, মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার, কামরুল আহসান বাবুল এবং ইসলামী আন্দোলনের মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী। এ ছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৮ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.