সীতাকুণ্ড বি’স্ফোরণে দগ্ধ ফায়ার কর্মী গাউসুল আজম আর নেই

সীতাকুণ্ড বি’স্ফোরণে দগ্ধ ফায়ার কর্মী গাউসুল আজম আর নেই

সারাদেশ: সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোর বিস্ফোরণে গুরুতর আহত গাউসুল আজম মারা গেছেন।

এ নিয়ে সীতাকুণ্ড বি’স্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে হলো ৪৭ জন। রোববার (১২ জুন) ভোরে ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. আইউব হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিসের সদস্য

গাউসুল আজম হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ রোববার ভোরে মারা গেছেন। তার শরীরের ৭০ শতাংশ অংশ দগ্ধ ছিল।’

গাউসুল আজমের বাড়ি যশোরের মনিরামপুরে। তার বাবার নাম আজগর গাজী। চট্টগ্রামের কুমিরা ফায়ার স্টেশনে কর্মরত ছিলেন তিনি। গত ৪ জুন (শনিবার)

রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগে। রাত ১০টার পর আগুনের খবর ছড়িয়ে পড়ে। ১১টার দিকে দাহ্য পদার্থ থাকা বেশ কয়েকটি কনটেইনার বিস্ফোরিত হয়। এতে এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যুর তথ্য জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে ১১ জন ফায়ার সার্ভিসের কর্মী। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৪ শতাধিক। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ৪৬ জনের মধ্যে ২৭ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। এসব ম’রদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এখনও ১৯ জনের পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.