সব ডাক্তার ক’সাই না, কিছু আছে ডা. কামরুলের মত গরিবের বন্ধুও- জেনে নিন বিস্তারিত

সব ডাক্তার ক’সাই না, কিছু আছে ডা. কামরুলের মত গরিবের বন্ধুও- জেনে নিন বিস্তারিত

দেশের কিডনি চিকিৎসায় কিংবদন্তিতুল্য চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. কামরুল ইসলাম। সৃষ্টি ও স্রষ্টার সেবাই যার ধ্যানজ্ঞান। অনেকটা নীরবে এই মহান চিকিৎসক মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন।

বিশেষ করে দেশের কিডনি রোগীদের জন্য তিনি যেন এসেছেন বিশেষ দূত হয়ে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার একটি স্ট্যাটাস ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে যা পাঠকদের উদ্দেশ্যে হুবহু তুলে ধরা হলো :

গরিবের বন্ধু ডা. কামরুল ইসলাম “আমি ছিলাম আমার বিভাগের সেরা ছাত্র। নিজের চিন্তা করলে তাদের থেকেও আমার ভালো কিছু করার সুযোগ ছিল।

এখানে আটকে আছি আমার দেশের টানে, বাবার রক্তের টানে। আমার মা আছে, বাবা শহীদ হওয়ার পর তিনি আমাকে কষ্ট করে মানুষ করেছেন।

আমি কীভাবে নিজের ভাবনায় দেশে ছেড়ে যেতে পারি” – অধ্যাপক ডা. কামরুল ইসলাম মাত্র দুই লাখ ১০ হাজার টাকার প্যাকেজ, যিনি কিডনি দেবেন এবং যিনি গ্রহণ করবেন;

তাদের জন্য। এ প্যাকেজে রয়েছে ১৫ দিনের মেডিসিন ও সব পরীক্ষা-নিরীক্ষার খরচ। এছাড়া ১৫ দিন পরও যদি তার চিকিৎসার প্রয়োজন হয় তবে তাকে থাকতে হবে কিডনি আইসিইউতে।

এক্ষেত্রেও কোনো খরচ লাগে না। ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বর থেকে সফলভাবে এক সহস্রাধিক রোগীর কিডনি প্রতিস্থাপন করেছেন। সাফল্যের হার শতকরা ৯৫ ভাগ, যা আন্তর্জাতিকপর্যায়ের সমকক্ষ।

ঢাকা পোস্ট : ভারতে এ ধরনের চিকিৎসায় ১২ থেকে ১৩ লাখ টাকা খরচ হয়। নামমাত্র খরচে কীভাবে আপনি এটা করেন? ডা. কামরুল ইসলাম : রোগী ও ডোনার, দুটা অপারেশনই আমি নিজে করি। অপারেশন খরচ আমি গ্রহণ করি না। ফলে রোগীর ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা সেভ হয়। আমাদের সিকেডি হাসপাতাল একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। মানুষকে সেবা দেওয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমাদের কাছে অর্থ নয়, সেবাই প্রথম।


Leave a Reply

Your email address will not be published.