সম্পর্কের কোনো দাম নেই, বেশিরভাগ মানুষরা হয়ে গেছে চরম স্বার্থপর!

সম্পর্কের কোনো দাম নেই, বেশিরভাগ মানুষরা হয়ে গেছে চরম স্বার্থপর!

পৃথিবীতে নাকি সন্তানের প্রতি মা-বাবার ভালোবাসা হচ্ছে সবচেয়ে খাঁটি, পবিত্র।

কিন্তু কথাটি কি সব মা-বাবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য?কখনো কখনো মা-বাবার ভালোবাসাও নির্ভর করে স্বার্থের উপর।

এই কথাটা তারা মানতে চাইবে না, যারা ছোট থেকে সোনার চামচ মুখে নিয়ে বড় হইছে কিংবা মা-বাবার অক্লান্ত চেষ্টা এবং সময়োপযোগী সিদ্ধান্তে সন্তান আজ সুখী।

অন্যদিকে, পৃথিবীতে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক নাকি পবিত্র সম্পর্ক।স্বামীর মনের প্রশান্তি যে এনে দেয় আর সবচেয়ে কাছের যে বন্ধুটি সে হচ্ছে স্ত্রী।আর একজন নারীর জীবনে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য মানুষটি তার স্বামী।

কিন্তু সব স্ত্রী কি স্বামীর মনে প্রশান্তি আনে?সব স্ত্রী কি পরম ভালোবাসায় পুরুষের হৃদয় সিক্ত করতে পারে? বন্ধু হয়ে অনুপ্রেরণা দিয়ে সামনে এগিয়ে নিতে পারে?

আবার সব স্বামীই কি স্ত্রীকে পরম যত্নে আগলে রাখে,রাখতে পারে?স্ত্রীকে পরিপূর্ণ নিরাপত্তা কিংবা স্ত্রীর প্রতি দায়িত্ব পালন করে? এক কথায় পারে না,হয়তো চেষ্টাও করে না কখনোই! দিনশেষে স্বামী কিংবা স্ত্রী, এই সম্পর্কেও একটা না একটা স্বার্থ থেকেই যায়!

আবার, সন্তান দিয়ে কি সব মা-বাবাই সুখ পায়?সব সন্তানই কি মানুষের মতো মানুষ হয়ে মা-বাবার ভরনপোষণ করতে পারে?করে? অবশ্যই না!
আজকাল আমরা মানুষেরা কাউকে ভালো রাখতে চাইনা,রাখার চেষ্টাও করিনা কখনো। বেশিরভাগ মানুষরা হয়ে গেছি চরম স্বার্থপর!আমাদের কাছে এখন

আর সম্পর্কের কোনো দাম নেই,সম্পর্কের মানুষগুলোর কথা না হয় বাদই দিলাম। ঠিক পশুর মতো হয়ে গেছি আমরা! পশু প্রাণী যেমন সন্তান জন্ম দিয়ে কিছুদিন পরম আগলে রেখে সন্তান একটু নিজের পায়ে উঠে দাঁড়াতে পারলেই দায়িত্ব ছেড়ে দেয়,তারপর আর সন্তানকে চিনেই না।অনেক পশু তো নিজের সন্তানকে নিজেই গিলে খায়! পশুরা যেমন জীবন সঙ্গীর প্রতি উদাসীন, ঠিক কিছু কিছু মানুষের ক্ষেত্রেও তেমন। সত্যি বলতে, আমরা মানুষরা বড্ড স্বার্থপর!. নিজের স্বার্থের বাইরে- কে সন্তান,কে স্বামী-স্ত্রী,কে মা-বাবা কিংবা কে বন্ধু; কাউকে চিনি না,কাউকেই না!

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)


Leave a Reply

Your email address will not be published.