স্ত্রী হত্যা মামলায় কারাগারে পুলিশের এসআই, জানা গেল চাঞ্চল্যকর তথ্য

স্ত্রী হত্যা মামলায় কারাগারে পুলিশের এসআই, জানা গেল চাঞ্চল্যকর তথ্য

চট্টগ্রাম নগরের হালিশহর এলাকায় স্ত্রীকে হ’ত্যা মামলায় পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জাবেদকে কারাগারে

পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার (১৫ জুন) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কাজী শরীফুল ইসলামের আদালত এ আদেশ দেন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সহকারী কমিশনার (প্রশিকিউশন) মো. ওয়াহিদ উল্লাহ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, স্ত্রী হত্যার অভিযোগে দায়ের

করা মামলায় এসআই মিজানুর রহমান জাবেদকে বুধবার আদালতে হাজির করা হয়। শুনানি শেষে আদালত আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

আসামি মিজানুর রহমান জাবেদ নোয়াখালীর সদর উপজেলার বিনোদপুরের বাসিন্দা। মিজানুরের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার কলি একই উপজেলার কাদির হানিফ ইউনিয়নের বাসিন্দা।

স্ত্রী হত্যার ঘটনার সময় জাবেদ নগরের হালিশহর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গত মঙ্গলবার নগরের হালিশহরের শান্তিবাগ এলাকার বাসা থেকে জাবেদকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালে মো. মিজানুর রহমান জাবেদ ও ফাতেমা আক্তার কলির বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা নগরের হালিশহরের শান্তিবাগ এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। সাংসারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রায় সময় কলিকে মারধর করতেন জাবেদ। ইতোমধ্যে জাবেদ প্রতিবেশী এক নারীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। কলি বিষয়টি জানার পর স্বামীকে নিষেধ করলে তার ওপর নির্যাতনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয়।

চলতি বছরের ২৫ মার্চ বিকেলে কোনো এক সময় ফাতেমা আক্তার কলিকে মারধর করেন জাবেদ। মারধরের এক পর্যায়ে তাকে হত্যা করে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যায় সে। হাসপাতালে নেওয়ার পর কলি আত্মহত্যা করেছে বলে স্বজনদের ফোন করে জানান স্বামী জাবেদ। যা কোনোভাবেই মেনে নেয়নি কলির পরিবার। কলির মরদেহের শরীরে একাধিক জখমের চিহ্ন পাওয়া যাওয়ায় এ ঘটনায় নিহতের পিতা আহসান উল্লাহ বাদী হয়ে এসআই মিজানুর রহমান জাবেদসহ পাঁচজনকে আসামি করে হালিশহর থানায় মামলা করেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.