সংসদে মমতাজ গান গাইলে দোষ নাই, আর জিহাদের কথা বললেই সমস্যা! একহাত নিলেন ড. ফয়জুল হক (ভিডিওসহ)

সংসদে মমতাজ গান গাইলে দোষ নাই, আর জিহাদের কথা বললেই সমস্যা! একহাত নিলেন ড. ফয়জুল হক (ভিডিওসহ)

কয়েকদিন ধরেই জাতীয় সংসদে ‘জিহাদ’ সম্পর্কে সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের বক্তব্য দেওয়া নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে।

সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের দেয়া বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান।

তারপরই শুরু হয়েছে বিতর্কিত কান্ড। আর এই বিতর্কিত কর্মকাণ্ড নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে লাইভে এসে রাজনীতিবিদ ড. ফায়জুল হক জিহাদ নিয়ে বিভিন্ন তথ্য দেন।

এসময় তিনি বলেন, ‘জিহাদ’ পবিত্র কুরআন মাজিদের একটি বহুল ব্যবহৃত পরিভাষা এবং ইসলামের একটি সামগ্রিক শব্দ। ‘জিহাদ’ শব্দটি ইসলাম ধর্মের মূল স্পিরিট। জিহাদ মানে হলো ন্যায়ের জন্য সংগ্রাম ও আত্মসংশোধন।

কোনো কোনো সময় এটি মুসলিম রাষ্ট্রের প্রতিরক্ষার জন্য চূড়ান্ত সংগ্রামও বটে। মূলত জিহাদের উদ্দেশ্যে হলো জীবন, সম্পত্তি ও ভূমি রক্ষা, অন্যায় ও নির্যাতন থেকে নিজের সম্মান ও স্বাধীনতা রক্ষা করা এবং অন্যকে রক্ষা করা। জিহাদ সমাজে ভালো কিছু করার এবং সমাজ থেকে অন্যায়,

নির্যাতন, মন্দকে দূর করার সংগ্রাম। এ সংগ্রাম আধ্যাত্মিক এবং একই সাথে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অনাচারের বিরুদ্ধে। জিহাদ হলো শোষিতের পক্ষে এবং শোষক ও জালিমের বিরুদ্ধে সংগ্রামের নাম। তাই জনগণের বুঝতে বাকি নেই যে,

যারা সমাজে-রাষ্ট্রে মানুষকে শোষণ করে এবং যারা ঘুষ-দুর্নীতি, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজের সাথে জড়িত ও যারা জনগণের সম্পদ রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় কুক্ষিগত করে কেবল তারাই জিহাদের বিরুদ্ধে আপত্তি জানাতে পারে।

এসময় তিনি আরও বলেন, সংসদে মমতাজ গান গাইলে দোষ নাই, কারণ সংসদে সরকারের সাপাই গাইতে গান, নাচ, কবিতা সব জায়েজ আছে। আর জিহাদের কথা বললেই সমস্যা! বাংলাদেশের রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম। শতকরা ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে কেউ কুরআনের কোনো পরিভাষা ব্যবহার করলেই তা নিয়ে আপত্তির শেষ নেই।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published.