প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে জনগণের ত্রাণ বড় না , আমি এই প্রধানমন্ত্রীকে মানিনা- প্রতিবাদের ভিডিও ভাইরাল

প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে জনগণের ত্রাণ বড় না , আমি এই প্রধানমন্ত্রীকে মানিনা- প্রতিবাদের ভিডিও ভাইরাল

সিলেটের বন্যার ভয়াবহতা পরিদর্শনে মঙ্গলবার সকালে সিলেট আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হেলিকপ্টারে বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে

তিনি সিলেট সার্কিট হাউসে রাজনীতিবিদ, প্রশাসনের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর দুপুরে তিনি হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় ফিরে যান।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর সফরের কারণে সিলেটের একাধিক সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে ফেসবুকে প্রচার করছেন অনেকে। তবে আমরা জানি না কোন কোন সড়ক বন্ধ করা হয়েছে।

তবে আমাদের কয়েকজন প্রতিনিধি পুরাতন পুল নামে পরিচিত ক্বীন ব্রিজ এছাড়া সার্কিট হাউজের আশেপাশে ও জিন্দাবাজার আম্বরখানা সহ বেশ কিছু রাস্তা ছিল বন্ধ ছিল বলে যাতায়াত করতে পারেনি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে এমনি এক চিত্র। ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি যুবক একটি ট্রাকে করে বানবাসী মানুষের জন্য বেশ কিছু খাবার রান্না করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই যুবক ভিডিওতে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সেই যুবক জানিয়েছে, বন্যাকবলিত মানুষের জন্য ত্রাণের গাড়ি পুলিশ আটকে দিয়েছে। এই যুবক ধিক্কার জানিয়েছে রাষ্ট্রব্যবস্থাকে ধিক্কার জানিয়েছে সরকারব্যবস্থাকে। এ সময় সেই যুবক আরোও বলেন, থু থু দিতে মন চাচ্ছে এই রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে। পুলিশ আমাদের দেখে বলছে, প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে ত্রাণ বড় না। উনি কিসের প্রধানমন্ত্রী? রাষ্ট্রের জনগণের থেকে প্রধানমন্ত্রী বড়? নাকি বাংলাদেশের জনগণ বড়? আজকে প্রধানমন্ত্রী কার জন্য হয়েছে? এই জনগণের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছে। আজকে যেখানে ৫০ লক্ষ মানুষ না খেয়ে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আসছেন তিনি ২০ জন মানুষকে ত্রাণ দিবেন। তিনি ফটোসেশন করতে আসছেন। এই ২০ জন মানুষের ত্রাণের জন্য আমাদের ত্রাণের গাড়ি আটকে দেয়া হয়েছে । পুলিশ বলছে জনগন বড় না আমাদের প্রধানমন্ত্রী বড়। প্রধানমন্ত্রীর কি আসমান থেকে ভেসে আসছে? এটাকি প্রধানমন্ত্রীর একার রাষ্ট্র আমাদের রাষ্ট্র না? যে রাষ্ট্র আমাদেরকে শিক্ষা দেয় প্রধানমন্ত্রী বড় রাষ্ট্র বড় না, সেই রাষ্ট্রকে আমি ধিক্কার জানাই। আমার গাড়িতে ব্যানারে লাগানো ত্রাণ বিতরণ করা হবে, এটা দেখার পরেও  আমাদেরকে ঢুকতে দেয়নি পুলিশ। এটা প্রধানমন্ত্রীর দেশ আমাদের দেশ না? আমরা কি ভেসে আসছি? শেখ হাসিনা বিনাভোটের প্রধানমন্ত্রী, সে ২০ জনকে ত্রাণ দিতে আসছেন হেলিকপ্টারে করে। আমার হেলিকপ্টারে আসি নাই। আমরা বাসে করে আসছি। গতকাল হাটু পর্যন্ত পানিতে ভিজে মানুষকে ত্রাণ বিতরণ করেছি। ৯০০ মানুষের দুপুর বেলার খাবার বিরায়ানি নিয়ে পুলিশ ঢুকতে দেয়নি। আমি এই ভোটারবিহীন প্রধানমন্ত্রীকে মানি না, আমি জনগণের জন্য রাজনীতি করি। আমার এই সংগঠন গণঅধিকার পরিষদ জনগণের জন্য রাজনীতি করে। কথা বলার ভাষা নাই, কিসের পুলিশ? পুলিশ তো জনগণের জন্য ।

সেই ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published.