এবার পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন বিয়ে করবেন প্রেমিক যুগল (ভিডিওসহ)

এবার পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন বিয়ে করবেন প্রেমিক যুগল (ভিডিওসহ)

পদ্মা সেতুর সঙ্গে মিলিয়ে নবজাতকদের নাম রাখার পর এবার সেতু উদ্বোধনের দিন বিয়ে করতে যাচ্ছেন এক প্রেমিক যুগল। এ দিন গোপালগঞ্জের মেয়ে সারজিনা

হোসাইন তৃমাকে বিয়ে করবেন তার প্রেমিক সাভারের বাসিন্দা হাসান মাহমুদ। হাসান মাহমুদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যানে স্নাতক এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে

স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে বর্তমানে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। আর তৃমা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ থেকে পড়াশুনা শেষ করে এখন একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত।

বুধবার (২২ জুন) এ তথ্য জানিয়েছেন এই প্রেমিক যুগল। তারা জানিয়েছেন বছর দশেক আগে তাদের পরিচয়। এরপর জানাশোনা ও মন দেওয়া-নেওয়া।প্রেমের সম্পর্কের একপর্যায়ে হাসান মাহমুদ কিছুটা মজা করে তৃমাকে বলেছিলেন,

ফেরিতে করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে বিয়ে করা কঠিন। কারণ, দুই এলাকার (গোপালগঞ্জ ও ঢাকা) মধ্যে যোগাযোগে বড় বাধা প্রমত্তা পদ্মা। এরপর যত দিন যাচ্ছিল তাদের প্রেম আরও পরিণত হওয়ার পাশাপাশি পদ্মার বুকে গড়ে উঠতে থাকে স্বপ্নের সেতু।

প্রমত্তা পদ্মার বুকে একের পর এক যখন স্প্যান বসানো হচ্ছিল, তখনই হাসানের মাথায় একটা দারুণ ‘বুদ্ধি’ আসে। তিনি ঠিক করেন পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিনই বিয়ে করবেন। এরপর তার এই ইচ্ছের কথা প্রেমিকা তৃমাকে জানালে তিনিও রাজি হয়ে যান।

হাসান-তৃমার সম্পর্কের কথা তাদের পরিবারও জানে। ইতোমধ্যে বিয়ের তারিখ নিয়ে পরিকল্পনার কথা পরিবারকেও জানিয়েছেন হাসান-তৃমা। তবে তাদের এই পরিকল্পনা শুনে উভয় পরিবার বেঁকে বসে। তারপরও নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন এই প্রেমিক যুগল।এ

বিষয়ে হাসান মাহমুদ বলেন, অভিভাবকদের চাপ সত্ত্বেও আমি আমার পরিকল্পনায় অটল থাকি। আমাকে সমর্থন দেয় তৃমা। আমরা দুজনেই একটা কথা ভেবেছি। আমরা একটা দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েছি। তাই আমরা আমাদের বিয়েটা স্মরণীয় করে রাখতে চাই।

তবে ইতোমধ্যে সব বাধা কেটে গিয়ে ১৭ জুন সন্ধ্যায় হাসান মাহমুদের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়েছে।তার গায়ে হলুদের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে তার ঘনিষ্ঠজন সজীব মিয়া লিখেছেন, পদ্মা সেতুতে যতদিন পাবলিক পরিবহন না চলছে, ততদিন কবুল না বলার সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন হাসান ভাই। পদ্মা সেতুর আলো জ্বলেছে, এবার আলো জ্বলল হাসান ভাইয়ের হলুদ-সন্ধ্যার।

এদিকে তৃমার গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হবে ২৪ জুন ঢাকায়। এই প্রস্তুতির মধ্যেই গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে হাসান মাহমুদ তার ফেসবুকে লিখেছেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ২৫ জুন বিয়ের পরিকল্পনা করেছি। সবার আশীর্বাদ প্রত্যাশা করছি।

ফেসবুক পোস্টে বিয়ের কার্ডও জুড়ে দিয়েছেন হাসান। কার্ড অনুযায়ী, বিয়ে ২৫ জুন। বিবাহোত্তর সংবর্ধনা ১ জুলাই।এ বিষয়ে হাসান বলেন, বিয়ের কার্ডের ধারণাটি আমার। ‘যথাশিল্প’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে কার্ড করিয়েছি। কার্ডে ঐতিহ্যবাহী জামদানি ব্যবহার করা হয়েছে। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিনকে কেন্দ্র করে আমাদের বিয়ের পরিকল্পনা। তাই কার্ডে পদ্মা সেতুর প্রতীকী অলংকরণ রাখা হয়েছে। এই কার্ড সেতুবন্ধনের বার্তা দেয়।

কার্ডের বাঁ-দিকে হাতে আঁকা একটি চিত্রকর্ম রয়েছে। গ্রামীণ পরিবেশে বিয়ের চিত্রকর্মটি এঁকেছেন তৃমা। কার্ডের নিচের অংশের ওপাশজুড়ে রয়েছে পদ্মা সেতুর প্রতীকী অলংকরণ। এ বিষয়ে তৃমা বলেন, পদ্মা সেতু সাহস, দৃঢ়তা ও বিজয়ের প্রতীক। আমাদের প্রেম থেকে পরিণয়ের দীর্ঘ যাত্রা এই সেতুর মতো সাহস-দৃঢ়তা ও বিজয়েরই আখ্যান হতে যাচ্ছে।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published.