স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে সর্বনাশ, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে সর্বনাশ, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধ’র্ষণের মামলায় সাতগ্রাম ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা অপুকে

(২২) গ্রেপ্তার করেছে আড়াইহজিরি থানা পুলিশ। বুধবার (২২ জুন) দুপুরে তাকে নারায়ণগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে পাঠায়।

গ্রেপ্তার ধ’র্ষণ মামলার আসামি অপু সাতগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াদ্দা গ্রামের শহিদের ছেলে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়,

আড়াইহাজারের পুরিন্দার কে এম সাদিকুর রহমান উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে (১৭) গত ১০ মে সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে অপু তার

গতিরোধ করে তার সঙ্গে গাড়িতে করে স্কুলে যাওয়ার কথা বলে। পরে ছাত্রী কথা না শুনে স্কুলের দিকে রওনা দিলে তাকে নিজের ব্যবহৃত কালো প্রাইভেট

কারে জোর করে তুলে নেয়। এরপর অপুর নোয়াদ্দার নিজ বাড়ির কাছে নির্জন স্থানে নিয়ে গাড়ির ভেতরেই ধ’র্ষণ করেন। পরে ভুক্তভোগী ছাত্রীকে বিয়ের

আশ্বাস দিয়ে বিষয়টি গোপন রাখতে বলেন অপু। কিন্তু পরে বিয়ের কথা অস্বীকার করেন অপু। একপর্যায়ে ছাত্রী তার পরিবারকে সবকিছু খুলে বললে পরিবার অপুর পরিবারের দ্বারস্থ হয়। অপু ছাত্রীকে বিয়ে করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এতে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বুধবার সকালে আড়াইহাজার থানায় অপুকে একমাত্র আসামি করে ধ’র্ষণ মামলা করেন। এরপর আড়াইহাজার থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। আড়াইহাজার থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক হাওলাদার বলেন, থানায় ধ’র্ষণ মামলা করেছেন ওই ছাত্রীর বাবা। এরপর পুলিশ অপুকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে। আসামিকে নারায়ণগঞ্জ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.