দেশে ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা কমছে..

দিন যতই যাচ্ছে করোনা ততই বেড়ে চলছে। তবে দুঃখের বিষয় হলেও সত্য যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে না একদল মানুষ। এভাবে চলতে থাকলে করোনা অনেক ভয়াবহ রুপ ধারণ করবে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ও মৃত্যুর মিছিল ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাস সারাদেশে আরও ১৮৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৭ হাজার ৪৬৫ জনে।

একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও ১২ হাজার ১৪৮ জন। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ৮৩ হাজার ৯২২ জনে।

শুক্রবার (১৬ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।বাংলাদেশে করোনা প্রথম শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। এর ১০ দিন পর ভাইরাসটিতে একজনের মৃত্যুর তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

আরোও পড়ুন:ফের বিতর্কিত এক কাণ্ডে আলোচনায় এসেছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। সম্প্রতি ত্রাণ (শাড়ি-লুঙ্গি) নিতে আসা

এক অসহায় বৃদ্ধকে ঘুষি মারার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন কাদের মির্জা।

শুক্রবার (১৬ জুলাই) সকালে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে অসহায় ও হতদরিদ্রদের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণের সময় ওই বৃদ্ধকে ঘুষি মারেন তিনি।কাদের মির্জার ২০ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডের ফেসবুক লাইভের মধ্যে ১৭ মিনিট ৩০ সেকেন্ডের সময় দেখা যায়, মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এক বৃদ্ধকে শাড়ি দিয়েছেন।বৃদ্ধ শাড়িটি পরিবর্তন করতে চাইলে কাদের মির্জা তার বুকে ঘুষি মেরে সরিয়ে দেন। এদিকে বৃদ্ধকে ঘুষি মারার ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন।রাহী হুদ্দা নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, জাতি হিসেবে আমরা লজ্জিত। ঈদ উপহারের নামে বৃদ্ধ এক বাবার গায়ে হাত তুলল পৌর মেয়র মির্জা কাদের।গরিব-দুঃখী ও অসহায়দের মাঝে ঈদের উপহার শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণের নামে কিল ঘুষি লাথি বিতরণ করছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌর মেয়র মির্জাকাদের। নিন্দা জানাই। ফয়সাল আল আজমি নামে একজন লিখেছেন, নেতা এতো চেতা ক্যারে? দান করতে আসার আগে মেজাজের ভলিউম কমাইয়া আনা উচিত।আসিবুল হোসেন নামে আরেক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, উপহার দেওয়ার নাম করে এ কেমন বর্বরতা? বৃদ্ধ মানুষদের ওপর এ কেমন অত্যাচার? জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার ব্যানার লাগিয়ে বর্বরতা চালাচ্ছেন বসুরহাটের পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।জননেত্রী শেখ হাসিনা নিজেকে মনে করেন জনগণের সেবক আর সেখানে ভয়ংকর শাসকের রুপে আবদুল কাদের মির্জা। দলের নাম ভাঙিয়ে তার একের পর এক অপকর্মের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়ার কি কেউ নেই?এ বিষয়ে জানতে মেয়র আবদুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *