ভয়ংকর করোনা, ঈদের আগে বেড়েছে দেশে মৃ’ত্যু

ঈদের বাকি আর মাত্র কয়েকদিন। এর মধ্যে ফের বাড়তে শুরু করেছে করোনায় মৃ’ত্যের সংখ্যা। শনাক্তও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৮৯৪ জনে। রোববার (১৮ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এছাড়া শনাক্ত হয়েছে ১১ হাজার ৫শ ৭৮ জন করোনা রোগী। এর আগে, শনিবার ২০৪ জনের মৃত্যু হয়। শুক্রবার ১৮৭ জন মারা যান। এর আগে, বৃহস্পতিবার ২২৬, বুধবার ২১০, মঙ্গলবার ২০৩, সোমবার ২২০ ও রোববার (১১ জুলাই) রেকর্ড ২৩০ জন মারা যান।

গত ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়ায়। এদিন মৃত্যু হয় ২০১ জনের।বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৪১ লাখ ছুঁই ছুঁই: মহামারি করোনার তাণ্ডবে এখনো টালমাটাল বিশ্ব।

দিন দিন যেন আরও ভয়ংকর হয়ে উঠছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। প্রতিদিন বেড়েই চলেছে মৃত্যু। আক্রান্তও হচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। করোনার টিকা আবিষ্কার হলেও এখনো কাটেনি শঙ্কা।

ভাইরাসটির নতুন ধরন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট মানুষের মনে আতঙ্ক আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। সর্বশেষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ কোটি ৭ লাখ ৮২ হাজার ২২৩ জনে।

আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০ লাখ ৯৮ হাজার ৯৯৬ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ কোটি ৩৮লাখ ২৯ হাজার ২৩০ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে রোববার (১৮ জুলাই) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন

৩ কোটি ৪৯ লাখ ৫৩ হাজার ৯৩৭ জন আর মারা গেছেন ৬ লাখ ২৪ হাজার ৭১৫ জন। করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ১১ লাখ ৫ হাজার ২৭০ জনে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ১৩ হাজার ৬৪০ জনের।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী ১ কোটি ৯৩ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৪১ হাজার ৩২৩ জনের।

ইন্দোনেশিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৯২ জন সবমিলিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭২ হাজার ৪৮৯ জনের। একই সময়ে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ হাজার ৯৫২ জন। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৮ লাখ ৩২ হাজার ৭৫৫ জন।

এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে ৫৮ লাখ ৫৫ হাজার ১৯১ জন, রাশিয়ায় ৫৯ লাখ ৩৩ হাজার ১১৫ জন, যুক্তরাজ্যে ৫৩ লাখ ৮৬ হাজার ৩৪০ জন, ইতালিতে ৪২ লাখ ৮৪ হাজার ৩৩২ জন, তুরস্কে ৫৫ লাখ ২২ হাজার ৩৯ জন, স্পেনে ৪১ লাখ ২২২ জন, জার্মানিতে ৩৭ লাখ ৫১ হাজার ২৩৪ জন এবং মেক্সিকোতে ২৬ লাখ ৪২ হাজার ৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে এক লাখ ১১ হাজার ৪৬৭ জন, রাশিয়ায় এক লাখ ৪৭ হাজার ৬৫৫ জন, যুক্তরাজ্যে এক লাখ ২৮ হাজার ৬৮৩ জন, ইতালিতে এক লাখ ২৭ হাজার ৮৬৪ জন, তুরস্কে ৫০ হাজার ৪৮৮ জন, স্পেনে ৮১ হাজার ৯৬ জন, জার্মানিতে ৯১ হাজার ৮৯৪ জন এবং মেক্সিকোতে ২ লাখ ৩৬ হাজার ১৫ জন মারা গেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *