দেশের দুই জেলায় বেড়েছে মৃ’ত্যুর মিছিল!

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় চারজন ও উপসর্গে ১৪ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টার মধ্যে তারা মারা যান। হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মৃত ১৮ জনের মধ্যে রাজশাহীর আটজন,

নাটোরের চারজন, পাবনা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে দুইজন করে, নওগাঁ ও কুষ্টিয়ার একজন করে। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৪৫ জন। বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি ছিলেন ৪৩৭ জন।

হাসপাতালে মোট করোনা ডেডিকেটেড শয্যার সংখ্যা এখন ৪৫৪টি। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গে ১২ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে।

একইসময় নতুন করে জেলার ৯০ জনের করোনা শনা’ক্ত হয়েছে। বুধবার (২১ জুলাই) বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে।

ফলে হাসপাতালে রোগী ভর্তি ও মৃ’ত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। রোগীর চাপ সামলাতে চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হয়েছেন ৩৫ জন। এরমধ্যে ১৪ জনই করোনা পজিটিভ রোগী।

বর্তমানে হাসপাতালের ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৩০২ জন। তিনি আরও বলেন, ২০২০ সালের ১৭ মার্চ করোনা ইউনিট চালুর পর থেকে এ পর্যন্ত এখানে ৯৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ছিলেন ২৫৯ জন।

একইসময়ে করোনা ইউনিটে ভর্তি হয়েছেন ৫ হাজার ৭৯২ জন। এদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ছিলেন ১ হাজার ৭২১ জন। এছাড়া এ পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪ হাজার ৫৪৯।

এদের মধ্যে পজিটিভ রোগী ছিলেন ১ হাজার ৩৪৯ জন। এদিকে মেডিকেল কলেজের আরটি-পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৮৮ জন করোনা শনাক্ত হন। শনাক্তের হার ৪৬ দশমিক ৮০ শতাংশ

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *